সুদীপ্ত সেনের ধাঁচেই রোজভ্যালি কাণ্ডে আদালতকে ৬ পাতার চিঠি দিল এই চিট ফাণ্ড মামলার প্রধান অভিযুক্ত  গৌতম কুন্ডু। আজ রোজভ্যালির কর্ণধার গৌতম কুন্ডু জেল থেকেই অলিপুরের সিবিআই ফার্স্ট আদালতে ৬ পাতার চিঠি পাঠায়‌। চিঠিতে সে জানায়, সিবিআই এবং ইডি তাকে বারেবারে বিনা কারণে জিজ্ঞেসাবাদ করার নাম করে উত্যক্ত করছে। তার অভিযোগ রাজনৈতিক ব্যক্তিদের যোগ থাকার কথা জোর করে তার মুখ দিয়ে বলাতে চায় তদন্তকারীরা।

আদালত সূত্রে খবর, এই চিঠিতেই এর পাশাপাশি তার সমস্ত টাকা আটকে রেখে দেওয়া এবং তার মাকে টাকা না দেওয়ার অভিযোগও করছে গৌতম কুণ্ডু। এদিন এই চিঠি পাওয়ার পরেই উভয় তদন্তকারী সংস্থার তদন্তকারী অফিসাদের তলব করে আদালত তথা সিবিআই ফার্স্ট কোর্ট। 

প্রসঙ্গত রোজভ্যালি কাণ্ডে বহু জলঘোলাই হয়েছে। তাপস পাল, সুদীপ্ত বন্দ্যোপাধ্যায়ের মত রাঘব বোয়ালরা গ্রেফতার হয়েছেন এই কাণ্ডে নাম জড়ানোর সুবাদে। অতীতেও অসহযোগিতা ও বৈষম্যমূলক আচরণের অভিযোগে জেলে মাথা ঠুকেছিল গৌতম। তাকে প্য়ারোলে মুক্তিও দেওয়া হয় গত ১০ ডিসেম্বর। তখনও সিবিআই অভিযোগ তোলে মাকে হাসপাতালে ভর্তি করার নামে বেশ কয়েকটি জায়গায় গিয়েছিল গৌতম।

দীর্ঘদিন ধরেই গৌতম কুণডু দাবি করে আসছে, তদন্তকারীরা তাকে সাহায্য করছে না। সে টাকা দিতে চায়। তদন্তকারীরা যে টাকা পাবে তা তার আমানতের তুলনায় অনেক কম। অথচ কেন্দ্র রাজ্য কেউই তাকে সাহায্য করছে না। অতীতের মতোই দাবিতে অনড় সে। সঙ্গে ্ সে প্রয়োগ করেছে চিঠির অস্ত্র। এখন দেখার সেই চিঠিতে কতটা কাজ হয়।