পড়ুয়াদের স্কুলে নিয়ে যাওয়ার পথে বাসের নিয়ন্ত্রণ হারালেন বাসের চালক। উত্তর কলকাতার চিৎপুর লকগেটের কাছে উল্টে গেল স্কুলবাস। দুর্ঘটনায় জখম কমপক্ষে ২৫ পড়ুয়া। ঘটনার জেরে সকালে তীব্র যানজট তৈরি হয় চিৎপুর ও লাগোয়া এলাকায়। আতঙ্কিত অভিভাবকরা।

শহরের নামী ইংরেজি মাধ্য়ম স্কুল হোলি চাইল্ড। সোমবার সকালে চিৎপুর লকগেটের কাছে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে ওই স্কুলেরই একটি বাস। বাসটি  ২৫ জন পড়ুয়া ছিল বলে জানা গিয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন,  চিৎপুর লকগেটের কাছে ঘিঞ্জি এলাকায় রাস্তার পাশে দাঁড়িয়েছিল একটি বালিবোঝাই লরি। লরিটিকে পাশ কাটিয়ে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন স্কুল বাসের চালক। আর তাতেই ঘটে বিপত্তি। শেষপর্যন্ত বাসটিকে আর নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারেননি চালক। রাস্তার পাশে একটি বিদ্যুতে খুঁটিতে ধাক্কা মেরে উল্টে যায় বাসটি। দুর্ঘটনার পর বাসটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। গুরুতর আহত হয়েছেন বাসের চালক। বাসে যে ২৫ পড়ুয়া ছিল, তারা সকলেই অল্পবিস্তর চোট পেয়েছে।  

দুর্ঘটনার  খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছায় শ্যামবাজার ট্রাফিক গার্ডের পুলিশকর্মীরা।  আহতদের উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয় আরজি কর মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে।  জানা গিয়েছে, বেশিরভাগেরই মাথা  ও আঙুলে চোট লেগেছে। প্রাথমিক চিকিৎসার পর কয়েকজনকে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।  ১০ জন এখনও ভর্তি হাসপাতালে। এদিকে স্কুলের যাওয়ার পথে এমন ভয়াবহ দুর্ঘটনায় আতঙ্কে ভুগছে কিশোর বয়সের পড়ুয়ারা। অনেকে তো ঠিকমতো কথাও বলতে পারছে না।  আতঙ্কে অভিভাবকরাও। তাঁদের  অনুমান, পড়ুয়াদের নিয়ে বেশ দ্রুতগতিতে যাচ্ছিল স্কুলবাসটি। তাই লরিকে পাশ কাটাতে গিয়ে বাসের নিয়ন্ত্রণ হারান চালক।