দুর্ভোগে সাধারণ মানুষ।  ৯ ফেব্রুয়ারি রবিবার দুপুর ১২ টা থেকে বাতিল হওয়া শুরু হয়েছে শিয়ালদহ-মেইন লাইনের রেল পরিষেবা। আগামী ৮ দিন ধরে কাজ চলবে অটোমেটিক সিগন্যালিং-এর। সেই কারণেই শিয়ালদহ আপ ও ডাউন মিলিয়ে বাতিল হওয়ার কথা প্রায় তিনশোর মত ট্রেন। একেই বন্ধ টালা ব্রিজ, তার উপর অটোমেটিক সিগন্যালিং-এর কাজ সব মিলিয়ে চরম দুর্ভোগের পড়তে হয়েছে নিত্য যাত্রীদের।

আরও পড়ুন- একটানা ৭ দিনে বাতিল কয়েকশো ট্রেন, চরম ভোগান্তির মুখে শিয়ালদহ মেইন লাইনের যাত্রীরা

 ইছাপুর, শ্যামনগর, কাকিনারা, নৈহাটিতে হবে অটোমেটিক সিগন্যালিং-এর কাজ। সোমবার ১০ ফেব্রুয়ারি প্রথম দিনেই বাতিল করা হয়েছে ৫২টি ট্রেন। কাজের দিনে এতগুলি ট্রেন বাতিল হওয়ায় নিত্য যাত্রীরা চরম হয়রানির শিকার হচ্ছেন। পরিস্থিতি সামলাতে রেল কতৃপক্ষের তরফ থেকে গ্যালপিং ট্রেনগুলোকে সবকটি স্টেশনেই দাঁড়ানোর সিন্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সাধারণ যাত্রীদের সুবিধার জন্য স্টেষশনে এক অনবরত ঘোষণা করা হয়েছে।

 

 

আরও পড়ুন- দত্তক নিতে গিয়ে শিশু পাচারকারী চক্রের ফাঁদে দম্পতি, গ্রেফতার ১


সোমবারের জন্য যে ট্রেনগুলি বাতিল করা হয়েছে তার মধ্যে রয়েছে ২টি শিয়ালদহ রানাঘাট লোকাল, ১৩টা শিয়ালদহ নৈহাটি লোকাল, ২টো নৈহাটি-রানাঘাট লোকাল, ১৪টি শিয়ালদহ-কল্যানী সীমান্ত লোকাল। নৈহাটি-বজবজ চলবে ব্যারাকপুর অবধি। এছাড়া তালিকায় রয়েছে একাধিক দূরপাল্লার ট্রেন। যার মধ্যে গঙ্গাসাগর এক্সপ্রেস চলবে ডানকুনি দিয়ে, সীতামারি, বালিয়া, গৌড়, পাটনা এক্সপ্রেস বাতিল হয়েছে। যাত্রীদের অসুবিধার কথা মাথায় রেখে ইতিমধ্যেই নির্ধারিত ট্রেনের তালিকা প্রকাশ করেছে রেল কর্তৃপক্ষ।