বেলেঘাটা আইডি-র পর এবার কলকাতার আরও এক সরকারি হাসপাতালে নোভেল করোনা ভাইরাস পরীক্ষার ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। স্বাস্থ্যদপ্তর সূত্রে খবর, এসএসকেএম হাসপাতালে যাবতীয় পরিকাঠামো তৈরি। কিটস পেলেই শুরু হয়ে যাবে পরীক্ষা এবং চিকিৎসা। আর তা চালু হলেই বেলেঘাটা আইডি এবং নাইসেডের পর আরও এক সরকারি হাসপাতালে করোনা ভাইরাস নির্ণয়ের কাজ শুরু করা যাবে। যার দরুণ বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালের উপর থেকেও অনেকটাই চাপ কমছে।

আরও পড়ুন, মহিলারাই সমাজের ভিত্তি,আন্তর্জাতিক নারী দিবসে পরপর ৩টে ট্যুইট মুখ্যমন্ত্রীর

রাজ্য়ের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে গত শুক্রবারই নবান্নে জরুরি বৈঠকে বসেছিলেন মুখ্য়মন্ত্রী। রিপোর্ট খতিয়ে তিনি আশ্বস্থ করেন যে, রাজ্য়ে এখনও কারও শরীরের করোনা ভাইরাসের নমুনা পাওয়া যায়নি। তবু যাবতীয় সাবধনতা মেনে চলার পরামর্শ দিয়েছেন মুখ্য়মন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায়। এবার হাসপাতাল করোনার নির্ণায়ক পরীক্ষার জন্য় কলকাতার এসএসকেম হাসপাতালও তৈরী।  স্বাস্থ্যদপ্তর সূত্রে খবর,পরীক্ষার পাশাপাশি প্রয়োজনে করোনা উপসর্গ যাদেরই দেখা যাবে, তাদেরকেই আইসোলেশনে পর্যবেক্ষণে রাখার প্রয়োজনীয় পরিকাঠামো তৈরী। আর কয়েকদিনের মধ্য়ে সেটি চালুও হয়ে যাবে। 

আরও পড়ুন, ৫০ টাকায় মুরগির মাইকিং করেও খদ্দের নেই,৭০০ টাকার খাসিতে লম্বা লাইন


সূত্রের খবর, এই মুহূর্তে দেশজুড়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ ছাড়িয়েছে। শনিবারই ওমান এবং ইরান থেকে ফেরা দুই জনের শরীরে ধরা পড়েছে এই ভাইরাস। তাঁরা  তামিলনাডু এবং লাদাখের বাসিন্দা। তবে এরাজ্যে এখনও কেউ নোভেল করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত না হলেও, বিভিন্ন জেলায় বিদেশ ফেরত বেশ কয়েকজনকে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। জ্বর, সর্দি-কাশি নিয়ে কারও সন্দেহ হলে আগে বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে যেতে হচ্ছিল, তবে এবার সেই তালিকায় নাম লেখাল এসএসকেম হাসপাতাল। যার দরুন বিপর্যয় পরিস্থিতে অনেকটাই চাপ সামলানো সম্ভব হবে। 

আরও পড়ুন, করোনা আতঙ্কে কাঁপছে বাংলা, এবার বন্ধ হল ভারত-বাংলাদেশ 'জয়েন্ট রিট্রিট'