ক্রমশই শক্তিশালী হয়ে উঠছে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল। শনিবার ভোর থেকেই শহরে ঝড়ো হাওয়ার সঙ্গে মুষলধারায় বৃষ্টি শুরু হয়েছে। শুক্রবার রাত থেকেই বন্ধ রাখা হয়েছে বাবুঘাট থেকে ফেরি পরিষেবা। বাবুঘাটে নোঙর করা জাহাজগুলিকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার কাজ চলছে। 

আরও পড়ুন, কুহেলির মৃত্যুতে তিন মাস শাস্তি চিকিৎসকদের, ক্ষুব্ধ পরিবার বলছে হলিডে প্যাকেজ

 আবহাওয়া দফতর সূত্রে জানানো হয়েছে যে, শহরে  সর্বাধিক উষ্ণতা ২৪ ডিগ্রি সেন্ট্রিগ্রেড এবং ২১ ডিগ্রি সেন্ট্রিগ্রেড। ১০০মিলিমিটার থেকে ২০০মিলিমিটার পরিমাণে ভারী বৃষ্টি হওয়ার প্রবল সম্ভবনা রয়েছে। ঘণ্টায় ১৩৫ কিমি বেগে আসতে পারে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল।শনিবার মধ্যরাতে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল, ভারত-বাংলাদেশের মাঝামাঝি স্থলভূমিতে আছড়ে পড়বে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন, ডেঙ্গু রোধে প্রশাসন কি পদক্ষেপ করেছে, হাইকোর্টের দ্বারস্থ এক আইনজীবী

 বুলবুল মোকাবিলার জন্য় বাংলা ও ওডিশায় এনডিআরএফের ৩৪ টিম নিয়োগ করা হয়েছে। ইতিমধ্য়েই বাংলা ও ওডিশায় পৌঁছে গিয়েছে, এনডিআরএফ অর্থাৎ জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের ৩৪ টিম । দুর্যোগের মোকাবিলা করার জন্য় আগাম প্রস্তুতি নিয়েছে প্রশাসন। এই পরিস্থিতিতে সতর্ক কন্ট্রোলরুম। প্রস্তুত বিপর্যয় মোকাবেলা বাহিনী। দুর্যোগ মোকাবিলার জন্য় সতর্ক করা হয়েছে উপকূলবর্তী এলাকার বাসিন্দাদের। মাইকেও ঘোষণা চলছে। সমুদ্রে যাওয়ার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে প্রশাসন।সমুদ্রোপকূলবর্তী এলাকায় হাওয়ার গতিবেগ আরও বাড়বে এবং  বৃষ্টিও শুরু হবে। এর প্রভাব পড়বে উত্তর ওড়িশার উপকূলেও। তাই, ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কাও উড়িয়ে দিচ্ছে না আবহাওয়া দফতর।