দিলীপ-মুকুল নন, রাজ্য়ে বঙ্গ বিজেপির মুখ্য়মন্ত্রীর পদপ্রার্থী হতে পারেন বেলুড় মঠের এক সন্ন্যাসী। সোশ্যাল মিডিয়ায় সম্প্রতি ভাইরাল হয়েছে এমনই এক পোস্ট। যা দেখে মুখ খুলেছে খোদ বেলুড় মঠ কর্তৃপক্ষ। খবরটা নেহাতই জল্পনা না সত্য়ি, এ নিয়ে কী বলেছেন মিশনের পদাধীকারী ?

দিলীপ -মকুল নিয়ে দলে দ্বন্দ্বের শেষ নেই। কার ইশারায় দল চলবে, তা নিয়ে প্রতিনিয়ত চলছে সংঘাত। বেগতিক দেখে আসরে নেমেছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জগৎপ্রসাদ নাড্ডা। ২১শের বিধানসভা নির্বাচনের আগে সবাইকে নিয়ে চলতে দিলীপ ঘোষকে পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। এরপরই মুকুল রায়ের মুখে শোনা গেছে, 'দলে কোনও দ্বন্দ্ব নেই' মন্তব্য। দুই যুযুধানের সংঘাতে জল পরলেও নতুন করে চিন্তায় বিষয় হয়ে  দাঁড়িয়েছে সোশ্য়াল মিডিয়ার একটি পোস্ট। যেখানে রাজ্য় বিজেপির মুখ্য়মন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসাবে তুলে ধরা হয়েছে বেলুড় মঠের এক সন্ন্য়াসীর নাম। 

জানা গিয়েছে, রামকৃষ্ণ মিশনের ওই সন্ন্য়াসী আসলে স্বামী কৃপাকরানন্দ মহারাজ। যদিও সন্ন্য়াসীর মুখ্য়মন্ত্রী পদপ্রার্থী হওয়ার খবর একেবারে ভুয়ো বলে দাবি করেছে বেলুড় মঠ কর্তৃপক্ষ। এ বিষয়ে স্বামী কৃপাকরানন্দের একটি বিবৃতিও ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে সোশ্য়াল মিডিয়ায়। মিশনের তরফে দাবি করা হয়েছে, তাঁকে নিয়ে যেসব খবর উড়ে বেড়াচ্ছে তা ভিত্তিহীন।

এ বিষয়ে সামনে এসেছে আরও একটি তথ্য়। যেখানে অধ্যাপক শুভ্রকান্তি চক্রবর্তীকে এক সাক্ষাৎকার দিয়েছেন দেবতোষ মহারাজ। এডুকেশনাল অ্যান্ড কালচারাল স্টেশন নামে একটি ইউটিউব চ্যানেলে মহারাজ বলেছেন,স্বামীজি আমাদের স্পষ্ট বলেছিলেন আমাদের কোনও রাজনৈতিক যোগাযোগ থাকবে না। মানে রাজনৈতিক ভাবে আমরা কোনও দিন সরব হব না। এটা আমরা শিববাক্য হিসেবে মানি।

তবে এই প্রথমবার নয়। এর আগেও বিজেপির মুখ্য়মন্ত্রী পদপ্রার্থী কে হবেন তা নিয়ে সোশ্য়াল মিডিয়ায় একাধিক নাম ঘুরে বেড়িয়েছে। রাজ্য় রাজনৈতিক মহলের মতে, দিলীপ ঘোষের বিরোধী গোষ্ঠীরাই এ ভাবে অস্বস্তিতে ফেলেছে দলের রাজ্য় সভাপতিকে। দিলীপ ঘোষের বিকল্প হিসেবে সৌরভ গঙ্গোপাধ্য়ায়, স্বামী কৃপাকরানন্দ ছাড়াও মুকুল রায় , বাবুল সুপ্রিয়র নাম প্রোজেক্ট করা হয়েছে।