Asianet News BanglaAsianet News Bangla

TMC: ডিএনএ নয়, জাতীয় স্তরে শক্তি বৃদ্ধিতে সংবিধান বদলাচ্ছে তৃণমূল, বৈঠকের পর বার্তা ডেরেকের

সর্বভারতীয় স্তরে শক্তি বাড়াতে সংবিধান বদলাচ্ছে তৃণমূল । সেখানে  শুধু বাংলা নয়, তৃণমূলের ওয়ার্কিং কমিটিতে স্থান পাবেন ভিন রাজ্যের নেতারাও।

TMC going to change their construction decided in working Committe meeting    RTB
Author
Kolkata, First Published Nov 29, 2021, 8:58 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

সর্বভারতীয় স্তরে শক্তি বাড়াতে সংবিধান বদলাচ্ছে তৃণমূল (TMC)। জাতীয়স্তরে দলের শক্তি বাড়াতে সোমবার কালীঘাটে বৈঠকে বসেছিল তৃণমূলের ওয়ার্কিং কমিটি। বৈঠক শেষে রাজ্যসভায় তৃণমূলের দলনেতা ডেরেক ওব্রায়েন (Derek O'Brien) জানান, সংবিধান বদলাচ্ছে তৃণমূল (TMC)।

উল্লেখ্য ২০২২ সালে পাঁচ রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন। তার পরেই এগিয়ে আসবে লোকসভা ভোট। তাই এবার জাতীয়স্তরে বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াই করতে প্রস্তুতি নিয়েছে তৃণমূল। বাইরের একাধিক রাজ্যে নিজেদের শক্তি প্রতিষ্ঠা করতে কঠোর চেষ্টায় ব্রতী হয়েছে তাঁরা। তবে কিছুটা ফল মিলিওছেয তাই জাতীয়স্তরের রাজনীতির কথা মাথায় রেখে দলের সংবিধানে পরিবর্তন আনা হবে। বহরে বাড়ানো হবে ওয়ার্কিং কমিটিকে। সেখানে  শুধু বাংলা নয়, তৃণমূলের ওয়ার্কিং কমিটিতে স্থান পাবেন ভিন রাজ্যের নেতারাও। বৈঠকের পর ডেরেক জানান, 'এখন তৃণমূলের সংবিধান অনুযায়ী ২১ জন রয়েছেন। সংখ্যা বাডা়নো হবে। নেত্রীকেই সেই দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। নতুন বেশ কয়েকজনকে কমিটিতে নেওয়া হবে।' ওয়ার্কিং কমিটির পরবর্তী বৈঠক হবে দিল্লিতে।  ডেরেক আরও বলেন,' বাংলা ভারতবর্ষকে মে মাসে দেখিয়েছে। ২০২৪ সালে সারা দেশকে পথ দেখাবে। আমরা গ্রোয়িং পার্টি। মমতাদির লড়াই, কর্মীদের মৃত্য়ু গোটা দেশে পৌছে যাচ্ছে। তবে তৃণমূলের ডিএনএ পরিবর্তন হচ্ছে না। শুধু দলের সংবিধান পরিবর্তন করা হচ্ছে।' 

প্রসঙ্গত, এদিন বৈঠকে ওয়ার্কিং কমিটির সদস্যরা ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ত্রিপুরা, মেঘালয়, উত্তরপ্রদেশ, গোয়ার তৃণমূল নেতারা। উল্লেখ্য, তৃণমূল ভবনে এদিন উপস্থিত ছিলেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন মেঘালয়ের ১২ জন নেতাকে শাল পরিয়ে স্বাগত জানান মমতা। প্রত্যেকে প্রতি নমস্কার করে তৃণমূল নেত্রীকে ধন্যবাদ জানান। নভেম্বরের মাঝামাঝি মেঘালয়ের রাজনীতিতে বড় পরিবর্তন আসে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভূয়সী প্রশংসা করে সেরাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মুকুল সাংমা যোগ দেন তৃণমূল কংগ্রেসে । সঙ্গে ছিলেন আরও ১১জন কংগ্রেস বিধায়ক।উল্লেখ্য, এই রাজনৈতিক পটপরিবর্তনের সঙ্গে  ২০১৮ সালের বিধানসভা নির্বাচনে ৬০ সদস্যের বিধানসভা নির্বাচনে কোনো আসন না জিতলেও, তৃণমূল কংগ্রেস মেঘালয় হাউসে প্রধান বিরোধী দল হয়ে উঠেছে।তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্যসভার সদস্য সুস্মিতা দেব এবং সাংমার ঘনিষ্ঠ সহযোগী পৃথকভাবে সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন যে বিরোধী নেতা সহ ১১ জন কংগ্রেস বিধায়ক তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেন। তৃণমূলে যোগদানকারী ১২ জন কংগ্রেস বিধায়কের মধ্যে আটজন বিধায়ক গারো পাহাড়ের, আর চারজন বিধায়ক খাসি জৈন্তিয়া পাহাড়ের। 

 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios