বৃহস্পতিবার লকডাউনে সকাল থেকে রাস্তাঘাট শুনশান। আর সেই ফাঁকা রাস্তার সুযোগ নিয়ে বেপরোয়া গাড়ি ধাক্কায় গুরুতর জখম হলেন কলকাতা পুলিশের এক ট্রাফিক সার্জেন্ট।  ঘটনাটি ঘটেছে উল্টোডাঙা থানা এলাকার হাটকো এবং কাঁকুড়গাছির সংযোগস্থলে। আকাশ হালদার নামে ওই ট্রাফিক সার্জেন্টকে গুরুতর জখম অবস্থায় বাইপাসের ধারে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আরও পড়ুন, নিম্নচাপের জেরে ভারী পূর্বাভাস কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গে, মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যেতে নিষেধ

পুলিশ সূত্রে খবর, বৃহস্পতিবার সকাল সাতটা নাগাদ একটি প্রাইভেট গাড়িকে হাডকো মোড়ের কাছে বেপরোয়া ভাবে আসতে দেখেন পুলিশকর্মীরা। আটকানোর চেষ্টা হলে, গাড়ির গতি আরও বাড়িয়ে কাঁকুড়গাছির দিকে পালানোর চেষ্টা করে চালক। তখনি কর্তব্যরত পুলিশকর্মীরা উল্টোডাঙা ট্রাফিক গার্ডের সার্জেন্ট বিশ্বজিৎ সাহাকে বিষয়টি জানান। তিনি কাঁকুড়গাছির কাছে গাড়িটিকে বেপরোয়া ভাবে আসতে দেখে দাঁড় করানোর চেষ্টাও করেন। কিন্তু ওই পুলিশকর্মীকে ধাক্কা মারে গাড়িটি। এমনকি তাঁকে পিষে দেওয়ার চেষ্টা করে চালক ও তার সঙ্গী। পুলিশ সূত্রে খবর, ট্রাফিক সার্জেন্ট গুরুতর আঘাত পেয়েছেন। তাঁর কাঁধ ও  শরীরের অন্যান্য অংশের হাড় ভেঙে গিয়েছে।  এইমুহূর্তে বাইপাসের ধারে এক বেসরকারি হাসপাতালে তাঁর চিকিৎসা চলছে। 

আরও পড়ুন, চিড়িয়াখানায় হোর্ডিং লাগাতে গিয়ে বিপত্তি, আচমকা মৃত্যুর মুখে ২ শ্রমিক


কিন্তু ঘটনার আকস্মিকতায় গাড়িটিকে আটকানো যায়নি। পরে গাড়ির নম্বরের সূত্র ধরে পর্ণশ্রী থানার পুলিশকর্মীদের সাহায্যে বেহালা থেকে গ্রেফতার করা হয় দুই জনকে। বছর চব্বিশের আকাশ হালদারের বাড়ি বেহালার ডায়মন্ড সিটি কমপ্লেক্সে এবং ধৃত তিতাস মিত্র নামের অপর এক যুবকের বাড়ি বাসুদেবপুরে। ধৃতদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ২৭৯, ৩৩৩, ৩০৭ এবং ৩৪ ধারায় মামলা রুজু হয়েছে। এছাড়াও ১৮৮ আইপিসি এবং ২১বি বিপর্যয় মোকাবিলা আইনেও মামলা রজু করেছে পুলিশ।