সকাল থেকেই অবরোধের জন্য় হাসনাবাদ-শিয়ালদা শাখায় ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়েছে।  বাতিল করা হয়েছে অধিকাংশ ট্রেন। পাশাপাশি, বেলডাঙাতে গতকালের বিক্ষোভের কারণে শনিবার শিয়ালদহ থেকে ট্রেন শুধুমাত্র কৃষ্ণনগর পর্যন্ত যাচ্ছে। বিক্ষিপ্ত অশান্তির কারণে সদরদিঘির পোড়াডাঙা স্টেশনে দাঁড়িয়ে রয়েছে ট্রেন। অপরদিকে সকাল থেকে মুর্শিদাবাদ জেলার বিভিন্ন প্রান্তে অবরোধের কারণে জঙ্গিপুর স্টেশনে দাঁড়িয়ে রয়েছে ট্রেন। এছাড়াও মহিপাল স্টেশনেও ট্রেন দাঁড়িয়ে। বিভিন্ন প্রান্তে বিপর্যস্ত ট্রেন চলাচল। হাসনাবাদ শিয়ালদহ শাখার কাঁকড়া মির্জানগর স্টেশনে কংগ্রেস কর্মীদের ট্রেন অবরোধ কর্মসূচি চলছে।

আরও পড়ুন, উত্তর ভারতে শুরু হয়েছে তুষারপাত, এদিকে কলকাতায় এখনও শীতের দেখা নেই

নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জায়গায় রেল অবরোধ করা হয়।  গতকাল এর জন্য় সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়ে, উলুবেড়িয়া স্টেশনে অবরোধের ঘটনায়। যেহেতু দূরপাল্লার বেশিরভাগ ট্রেনই এই পথ দিয়েই যেতে হয়, তাই আটকে পড়ে তাম্রলিপ্ত এক্সপ্রেস, কাণ্ডারি এক্সপ্রেস, ইস্ট-কোস্ট এক্সপ্রেস, যশবন্তপুর দুরন্ত এক্সপ্রেস, ধৌলি এক্সপ্রেস সহ হাওড়া থেকে ছেড়ে যাওয়া এবং হাওড়াগামী ট্রেন। এছাড়াও বহু লোকাল ট্রেনও বিভিন্ন স্টেশনে আটকে থাকার জন্য় বন্ধ হয়ে যায় হাওড়া এবং খড়গপুরের যোগাযোগ ব্য়বস্থা।

আরও পড়ুন, শিলিগুড়িতে আক্রান্ত আবগারি দপ্তরের আধিকারিক, মেরে মাথা ফাটিয়ে দিল দুষ্কৃতীরা

একইভাবে নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে বিক্ষোভের জেরে গতকাল, রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় মুর্শিদাবাদের বেলডাঙা স্টেশন। ব্য়াপক ভাঙচুর চালায় বিক্ষোভকারীরা। তারই সঙ্গে চড়াও হয় রেল কর্মীদের উপরেও। পরিস্থিতি সামাল দিতে গিয়ে, আহত হন রেল পুলিস কর্মী।  এই ঘটনার জেরে কৃষ্ণনগর এবং লালগোলার মধ্য়ে ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। বাতিল করতে হয় লালগোলা থেকে কলকাতাগামী হাজারদুয়ারী এক্সপ্রেস। অন্য়দিকে বসুলডাহা স্টেশনে অবরোধের জেরে, শিয়ালদহ-ডায়মন্ড হারবার শাখার ট্রেন চলাচল ব্য়হত হয়।