ডিসেম্বর মাস পড়ে গেলেও এখনই জাঁকিয়ে শীত পড়ার সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে না কলকাতায়। মঙ্গলবার সকালে আলিপুর আবহাওয়া অফিস থেকে জানানো হয়েছে, এদিন আকাশ পরিষ্কারই থাকবে, বৃষ্টির কোনও সম্ভাবনা নেই। এদিন সর্বোচ্চ তাপমাত্রা পৌঁছতে পারে ২৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকবে ১৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মতো। সোমবার শহরে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৮.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি কম, ১৫.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আগামী সাতদিনেও শহরে পারদ নামার সম্ভাবনা কম। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ঘোরাফেরা করবে ২৯ থেকে ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে। আর সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকবে ১৬ থেকে ১৮ ডিগ্রির মধ্যে। আবহাওয়া অফিসের পূর্বাভাস বলছে যতদিন যাবে তত তাপমাত্রা কমার বদলে বাড়তে পারে। তবে আগামী সাতদিনেও শহরে বৃষ্টির কোনও সম্ভাবনা নেই। মূলত আকাশ পরিষ্কারই থাকবে। জাঁকিয়ে শীত না পড়লেও বাতাসের আদ্রতার পরিমাণ থাকবে ৬০-এর নিচেই, তাই গরম হলেও ঘাম হওয়ার সম্ভাবনা কম।

আরও পড়ুন - শুধু ধর্ম নয়, পুরুষদের জানাতে হবে আরও বেশি কিছু - অসমে আরও কড়া 'লাভ জিহাদ' আইন

আরও পড়ুন - ৫০০-র মধ্যে শুধু ৩২টি সংগঠন ডাক পেল সরকারের, ক্ষুব্ধ কৃষকরা আদৌ যোগ দেবেন তো

আরও পড়ুন - একদিনেই নতুন সংক্রমণ কমল ২০ শতাংশ, বেড়েই চলেছে সুস্থতার হার - ভারতে ক্রমে দুর্বল করোনা

কলকাতা-সহ পশ্চিমবঙ্গের অন্যান্য জেলাগুলিতে বৃষ্টির কোনও পূর্বাভাস না থাকলেও উত্তরবঙ্গের দার্জিলিং এবং কালিম্পং জেলায় বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

অন্যদিকে সোমবারই জানানো হয়েছিল, দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে আরও একটি নিম্নচাপ ব্যবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। দিল্লির মৌসম ভবনের পূর্বাভাস-এর সঙ্গে সঙ্গতি রেখেই এই নিম্নচাপ ব্যবস্থাটি আরও পশ্চিমে সরে এসে, কন্যাকুমারী থেকে ১০৪০ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে। এর প্রভাবে আগামী ৩ দিনে তামিলনাড়ু, পুদুচেরি এবং কেরলে বিচ্ছিন্নভাবে ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণের পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। উপকূলীয় অন্ধ্রপ্রদেশ এবং লক্ষদ্বীপেও হাল্কা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত হতে পারে।