আবহাওয়া দফতরের দেওয়া পূর্বাভাস অনুযায়ী সরস্বতী পুজোর সকাল থেকে বৃষ্টি হচ্ছে দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে। এদিন সকাল থেকেই কলকাতা ও পাশ্ববর্তী অঞ্চলে মেঘলা আকাশ। দফায় দফায় চলছে বৃষ্টি। সরস্বতী পুজোর সকালে এই অকাল বৃষ্টিতে নাজেহাল রাজ্যবাসী। 

মঙ্গলবার রাত থেকেই মেঘ জমছিল। বর্ধমান,বাঁকুড়া, পুরুলিয়াতে বিক্ষিপ্ত থেকে হালকা বৃষ্টিও হয়। বুধবার সকাল থেকে বৃষ্টি শুরু হল তিলোত্তমাতেও। সেই সঙ্গে বইছে দমকা হাওয়াও। বৃহস্পতিবারও শহরে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। বাংলাদেশ সীমান্ত লাগোয়া জেলাগুলিতেও বৃষ্টি হতে পারে। তবে শুক্রবার থেকে দক্ষিণবঙ্গের আকাশ পরিস্কার হয়ে যাবে। সকালের দিকে থাকবে সামান্য কুয়াশা, রাতের দিকে নামবে তাপমাত্রা। সপ্তাহান্তে ফের মিলবে শীতের আমেজ।

উত্তরবঙ্গে দার্জিলিং ও কালিম্পং-এর মত পাহাড়ি এলাকায় শুক্রবারও কিছুটা বৃষ্টি হবে। শনিবার থেকে ঝলমলে আবহাওয়া থাকবে উত্তরবঙ্গে। 

এদিকে মেঘলা আকাশের কারণে মঙ্গলবার রাতের তাপমাত্রা একধাক্কায় বাড়ল ৫ ডিগ্রি। বুধবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৮.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে ৪ ডিগ্রি বেশি। মঙ্গলবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৭.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি উপরে। ভোর রাত থেকেই বৃষ্টি শুরু হয়েছে শহরে। পশ্চিমী ঝঞ্ঝার প্রভাবেই চলছে এই বৃষ্টি।

এদিকে পশ্চিমী ঝঞ্ঝার প্রভাবে জম্মু-কাশ্মীর, হিমাচল প্রদেশ ও উত্তরাখণ্ডে নতুন করে তুষারপাতের সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। বৃষ্টি হতে পারে পঞ্জাব, হরিয়ানা, চণ্ডীগড়, রাজস্থান, দিল্লি, ওড়িশা, ঝাড়খণ্ড ও বিহারে। আগামী দু-তিন দিন উত্তর ,পশ্চিম ও মধ্যভারতের রাজ্যগুলিতে ঘন কুয়াশার দাপট থাকবে।