মঙ্গলবারেও একই থাকবে পরিস্থিতি। তবে আলিপুর আবহাওয়া দপ্তরে তরফ থেকে জানানো হয়েছে আগামী ২৪ ঘণ্টায় দুই মেদিনীপুর ঝাড়গ্রাম ও দুই ২৪ পরগনায় বজ্রবিদ্যুৎ সহ হালকা বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। কলকাতায় সকালে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা  ২৫.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিক তাপমাত্রা। গতকাল বিকেলে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৭.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে ২ ডিগ্রি উপরে। বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ ছিল ১৯ থেকে ৯৩ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় কোনও বৃষ্টি হয়নি।

আরও পড়ুন- মুখে দিলেই মিলিয়ে যাবে করোনা, টোটকা দিলেন কলকাতার 'বদ্যি'

আবহাওয়া দপ্তরের খবর অনুযায়ী আগামী বুধ ও বৃহস্পতিবার উত্তরবঙ্গের কয়েকটি জেলায় এবং দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। বজ্রবিদ্যুৎ সহ হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে। কোথাও কোথাও ঝোড়ো হাওয়া বইবে বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস। বিক্ষিপ্তভাবে দমকা হাওয়ার গতিবেগ থাকতে পারে ৩০ থেকে ৪০ কিলোমিটার পর্যন্ত। শুক্রবার থেকে বৃষ্টির পরিমাণ বাড়তে পারে উত্তরবঙ্গে। সিকিম উত্তরবঙ্গে শুক্র ও শনিবার বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টি এবং ঝড় হওয়ার সম্ভাবনা। শুক্রবার দক্ষিণবঙ্গের চারটি জেলায় বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। হালকা বৃষ্টি হবে দুই মেদিনীপুর ঝাড়গ্রাম ও দক্ষিণ ২৪ পরগনায়।

আরও পড়ুন- চিড়িয়াখানায় বাঘের শরীরে করোনা, নবান্নে বার্তা পাঠাল কেন্দ্র

৯ এপ্রিল নতুন করে পশ্চিমী ঝঞ্জা ঢুকবে উত্তর-পশ্চিম ভারতে। এর ফলে আবার আবহাওয়ার পরিবর্তন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আগামী কয়েকদিন আসাম-সহ উত্তর পূর্ব ভারতের রাজ্যগুলিতে ঝড় বৃষ্টি এমনকী কালবৈশাখী হতে পারে। আন্দামান সাগর ও কেরল লাক্ষা দ্বীপের কাছে সমুদ্রের ঝড়ো হাওয়া উত্তাল হওয়ার সম্ভাবনা এই এলাকায় মৎস্যজীবীদের যেতে নিষেধ করা হয়েছে। সপ্তাহান্তে সৌরাষ্ট্র কচ্ছে তাপপ্রবাহের সম্ভাবনার কথা জানিয়েছে আবহাওয়া দফতর। পশ্চিমী ঝঞ্ঝার শীতল হাওয়া ও পূবালী গরম হওয়ার সংঘাতে এই ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা। উত্তরবঙ্গ থেকে ওড়িশা পর্যন্ত রয়েছে নিম্নচাপ। গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের উপর দিয়ে বিস্তৃত এই নিম্নচাপ থাকবে। এই দুইয়ের ফলে ঝড় বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে চলতি সপ্তাহে।