এসেছে বর্ষার মরশুম। তবু মন ভরেনি শহরের। ভরবেই বা কী করে, বারবার বুড়ি ছুয়েই চলে গিয়েছে বর্ষা। ছিঁটেফোঁটা বৃষ্টির দমকেই  স্বস্তি খুঁজে নিতে হয়েছে নগরবাসী।

তবে এবার অবস্থাটা  খানিকটা হলেও বদলাবে। আবহাওয়া দফতর থেকে জানানো হয়েছে কলকাতা -সহ গোটা দক্ষিণবঙ্গেই ঘৃর্ণাবর্তের জেরে বৃষ্টি আসতে চলেছে। জানা গিয়েছে তিনদিন বৃষ্টি হতে পারে শহরে।  প্রথম দিকে কলকাতা-সহ দুই মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম এবং পরের দিকে পশ্চিমের জেলাগুলো অর্থাৎ পুরুলিয়া,বাঁকুড়া ,বীরভূমে বৃষ্টি হবে। জানানো হচ্ছে, মূলত একটি নিম্নচাপ অক্ষরেখা পশ্চিমবঙ্গের উপর দিয়ে গিয়েছে এবং একটি ঘূর্ণাবর্ত রয়েছে বঙ্গবসাগর উপরে। এর প্রভাব প্রথমে উপকূলের জেলাগুলিতে পড়বে।  পশ্চিমের জেলা গুলিতে ভারী বৃষ্টি হবে। প্রসঙ্গত ক্রমেই এই বৃষ্টি যাবে উত্তরের দিকে। আলিপুরদুযার, কালিম্পং, জলপাইগুড়, দার্জিলিং-এর মতো জেলাগুলিতেও ভাল বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে দিন তিনেক পর থেকে। এদিন মৎস্যজীবাদের সমুদ্রে যেতে না করা হয়েছে। 

উল্লেখ্য এবছর শুরু থেকেই ভেলকি দেখিয়েছে বর্ষা। নির্দিষ্ট সময়ে বৃষ্টি আসেনি। তার ওপর প্রাক বর্ষার বৃ্ষ্টির অভাবে ব্যপক ঘাটতি তৈরি হয়েছে জেলায় জেলায়। এই ঘাটতি মেটাতে প্রয়োজন ভারী বৃষ্টি। আর মেটাতে না পারলে পশ্চিমবঙ্গের অনেকগুলি জেলাকেই মাশুল গুণতে হবে। আপাতত হাওয়া অফিস মনে করছে, এই নিম্নচাপ কেটে গেলে বর্ষাজনিত সক্রিয়তা তৈরি হতে পারে বঙ্গোপসাগরে। জুলাই মাসের প্রথম সপ্তাহ শেষের পথে। রাজ্যবাসী আকাশের দিকেই চেয়ে দিন গুণছে।