বৃহস্পতিবার  শহরের আকাশ মেঘলা থাকবে। আগামী ২ থেকে ৩ ঘন্টার মধ্য়ে বৃষ্টি আসছে, বৃহস্পতিবার সকাল ৮ টা ২৫ নাগাত জানাল আবহাওয়া দফতর। কলকাতার একাংশ, পশ্চিমবঙ্গের উত্তর ২৪ পরগণা এবং দক্ষিণ  ২৪ পরগণা জেলায় বজ্রবিদ্য়ুৎ সহ হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির পূর্বাভাস।

 

 

আরও পড়ুন, শনিবার খুলছে দক্ষিণেশ্বর মন্দির, থার্মাল চেকিং-এর পর মিলবে প্রবেশের অনুমতি

হাওয়া অফিস সূত্রে খবর, কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৮.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি বেশি।  এবং সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৫.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস।  যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি বেশি। শহরের বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ সর্বাধিক ৯৩ শতাংশ। আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ ন্যূনতম ৫৬ শতাংশ। তবে বর্ষা ঢুকতে আর দেরি নেই বলে আগাম জানিয়েছে হাওয়া অফিস। টানা বর্ষায় মিলতে পারে ভ্য়াপসা গরম থেকে মুক্তি। রাজ্যজুড়ে বৃষ্টির সম্ভাবনা এবং সপ্তাহান্তে বৃষ্টি বাড়বে আগেই জানিয়েছে হাওয়া অফিস। উত্তরবঙ্গের দুই জেলায় ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস।  আলিপুরদুয়ার, কোচবিহারে বৃষ্টির পূর্বাভাস। পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় দার্জিলিং, কালিম্পং, জলপাইগুড়ি, কোচবিহার, আলিপুরদুয়ার এই ৫ জেলায় ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা।দক্ষিণবঙ্গে আজ আর্দ্রতা জনিত অস্বস্তি বাড়বে। বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির সামান্য সম্ভাবনা। শুক্রবার থেকে বৃষ্টি বাড়বে দক্ষিণবঙ্গে।
 

 

 

আরও পড়ুন, ২৬ বছর পর কলকাতায় ফের 'পাতালে' মেট্রো স্টেশন, শীঘ্রই জুড়তে চলেছে 'ফুলবাগান'

 দক্ষিণ পশ্চিম মৌসুমি বায়ু আরও সক্রিয়। মৌসুমী বায়ুর একটি অংশ উত্তর বঙ্গোপসাগরে ঢুকে পড়েছে।মায়ানমারের কিছু অংশে প্রবেশ করেছে দক্ষিণ পশ্চিম মৌসুমি বায়ু।এরপর উত্তর-পূর্ব ভারতের রাজ্যগুলির মধ্যে দিয়ে উত্তরবঙ্গে প্রবেশ করবে মৌসুমী বায়ু। অন্যদিকে মহারাষ্ট্র, কর্ণাটক, তেলেঙ্গানা হয়ে অন্ধ্রপ্রদেশ পর্যন্ত এগিয়েছে দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ুর আরেকটি অংশ।উত্তর পূর্ব ভারতের মিজোরাম, মণিপুর এবং ত্রিপুরাতেও ঢুকে গিয়েছে বর্ষা৷ পাশাপাশি অসম এবং নাগাল্যান্ডের কিছু অংশেও বর্ষা ঢুকে গিয়েছে বলে জানিয়েছেন আবহবিদরা৷ একই সঙ্গে দক্ষিণ ভারতে তামিলনাড়ুর বাকি অংশেও বর্ষা চলে এসেছে৷ আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে পশ্চিমবঙ্গে প্রবেশ করবে দক্ষিণ পশ্চিম মৌসুমি বায়ু অর্থাৎ বর্ষা এমনটাই অনুমান আবহাওয়াবিদদের ।