এবারের দোল ও হোলিতে আবহাওয়া ছিল মনোরম। রোদ ঝলমলে ছিল আকাশ। কিন্তু বসন্তোউৎসব মিটতেই ফের বৃষ্টির সম্ভাবনা তৈরি হচ্ছে রাজ্যে। তার জেরে বুধবার আংশিক মেঘলা থাকবে দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলির আকাশ। বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে পশ্চিমের জেলাগুলিতে। বৃহস্পতিবার এবং শুক্রবার দক্ষিণবঙ্গের আরও কিছু জেলায় বৃষ্টি হতে পারে। বৃষ্টি হবে উত্তরবঙ্গের দার্জিলিং ও কালিম্পং-এর পার্বত্য এলাকাতেও। রাতের তাপমাত্রা বাড়ার কারণে আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তি বাড়বে।

আরও পড়ুন: কর্মীদের কাজে খুশি নয় সরকার, বাতিল হল সপ্তাহে ২ দিনের ছুটি

এদিকে বুধবার শহর কলকাতার আকাশ সকাল থেকে মেঘলা। এদিন তিলোত্তমার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২২.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি বেশি। মঙ্গলবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে ২ ডিগ্রি নিচে। বাতাসে জলীয়বাষ্পের পরিমাণ ৩৬ থেকে ৯৬ শতাংশ। গত দু'দিন শহরে কোনও বৃষ্টি হয়নি। 

এদিকে ফের একটি পশ্চিমি ঝঞ্ঝা মঙ্গলবার রাতে উত্তর-পশ্চিম হিমালয়ে ঢুকেছে। যার জেরে রাজস্থান ও সংলগ্ন এলাকায় ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হয়েছে। সাগর থেকে প্রচুর জলীয়বাষ্প ঢুকছে ঘূর্ণাবর্তের টানে। পশ্চিমী ঝঞ্ঝার শীতল হাওয়া ও সাগরের গরম হাওয়ার সংঘাতে  ফের বৃষ্টির পরিস্থিতি তৈরি হচ্ছে। 

আরও পড়ুন: আর এশিয়ার ধনীতম ব্যক্তি নন মুকেশ অম্বানি, কে পদচ্যুত করলেন তাঁকে

জম্মু-কাশ্মীর, হিমাচলপ্রদেশ, ঝাড়খণ্ডে বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি-ঝড় ও তুষারপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। ঝোড়ো হাওয়ার সঙ্গে বৃষ্টি হবে পঞ্জাব, হরিয়ানা, চণ্ডীগড়, দিল্লি সহ উত্তর-পশ্চিম ভারতের রাজ্যগুলিতে। ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ, ঝাড়খণ্ড, ওড়িশা ও গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গেও।