শুক্রবারই মেঘ কেটে আকার পরিষ্কার হয়ে গিয়েছিল। আর আবহায়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী শনিবার শহর কলকাতায় ফিরল শীত। স্বাভাবিকের নিচে নেমে গেল দিন ও রাতের তাপমাত্রা। সপ্তাহান্তে জিময়ে এই শীতের আমেজ উপভোগ করতে পারবেন  শহরবাসী। সকালের দিকে কুয়াশা থাকলেও পরে আকাশ পরিষ্কার হয়ে যাবে। 

আবহাওয়া দফতর জানিয়েছিল সপ্তাহ শেষে কলকাতার তাপমাত্রা নেমে যাবে ১২ থেকে ১৩ ডিগ্রিতে। জেলার ক্ষেত্রে পারদ থাকবে ১০ ডিগ্রির কাছাকাছি। সেই মতই শনিবার শহর কলকাতার তাপমাত্রা ছিল ১৩.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে ২ ডিগ্রি নিচে। সোমবার পর্যন্ত এই শীতের আমেজ অনুভূত হবে বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস।

শুক্রবার থেকেই নামতে শুরু করে তাপমাত্রার পারদ। ঐদিন রাতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৪.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে ৩ ডিগ্রি নিচে ছিল। বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ ৪৬ থেকে ৯৩ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় শহরে বৃষ্টি হয়নি। তবে দার্জিলিং ও উত্তরবঙ্গের পার্বত্য এলাকায় আগামী ৪৮ ঘণ্টা বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে হাওয়া অফিস। উত্তরবঙ্গ ও দঙ্গিনবঙ্গের বাকি জেলাগুলিতে সকালের দিকে কুয়াশা থাকবে, যদিও পরে আকাশা পরিষ্কার হয়ে যাবে। 

এদিকে সোমবার রাতে জম্মু-কাশ্মীরে পশ্চিমী ঝঞ্ঝা ঢুকতে চলেছে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দফতর। এই শক্তিশালী পশ্চিমী ঝঞ্ঝার প্রভাবে আগামী সপ্তাহে এরাজ্যে বৃষ্টিপাতের  সম্ভাবনা রয়েছে। তবে কবে ও কোথায় এই বৃষ্টি হবে তা আগামী সপ্তাহে আবহাওয়া দফতরের তরফে জানানো হবে। 

জম্মু- কাশ্মীরে পশ্চিমী ঝঞ্ঝা ঢুকে গেলেহিমাচল প্রদেশ, উত্তরাখণ্ড, পঞ্জাব, হরিয়ানা, চণ্ডীগড়, দিল্লি সহ উত্তর-পশ্চিম ভারতের রাজ্যগুলিতে শিলাবৃষ্টি শুরু হবে। সোমবার পর্যন্ত ঘন কুয়াশায় ঢাকা থাকবে পঞ্জাব, হরিয়ানা, চণ্ডীগড়, দিল্লি ও উত্তরপ্রদেশ। মঙ্গলবার বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে মধ্যপ্রদেশ, ছত্তিশগড় ও ঝাড়খণ্ডের বেশকিছু জায়গায়।