পশ্চিমী ঝঞ্ঝা ও পূবালী হাওয়ার সংঘাতে ফের শীতের মরশুমে বৃষ্টি রাজ্যে। বুধবার থেকেই বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে রাজ্যের পশ্চিমের জেলা বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, পশ্চিম মেদিনীপুর, পূর্ব মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, পশ্চিম বর্ধমান, পূর্ব বর্ধমান ও বীরভূমে। বৃহস্পতিবার থেকে বৃষ্টি শুরু হবে কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গের অন্যান্য জেলাগুলিতেও। 

আবহাওয়া দফতর পূর্বাভাস দিচ্ছে শহর কলকাতায় বৃহস্পতিবার রাত থেকে শুরু হবে বৃষ্টি। শুক্রবার পর্যন্ত চলবে এই বৃষ্টি। ওড়িশা ও ঝাড়খণ্ড লাগোয়া জেলাগুলিতে বৃষ্টির পরিমাণ বেশি হবে। অন্যান্য জায়গাগুলিতে কয়েকদফায় হালকা বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। 

পশ্চিমী ঝঞ্ঝা ও পূবালি হাওয়ার সংঘাতেই রাজ্যে এই অকাল বৃষ্টি। বঙ্গোপসাগরে বিপরীত ঘূর্ণাবর্তের জেরে পূবালী হাওয়ার সঙ্গে ঢুকছে জলীয়বাষ্প পূর্ণ বাতাস। এর জেরেই আংশিক মেঘলা থাকবে শহরের আকাশ। 

এদিকে বুধবার এক ধাক্কায় ৪ ডিগ্রি বাড়ল কলকাতার তাপমাত্রা। সকালে আকাশ ছিল কুয়াশায় ঢাকা। পরে বেলা বাড়তেই আংশিক মেঘলা হয়ে যায় আকাশ।

বুধবার তিলোত্তমার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৬.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এটা স্বাভাবিক তাপমাত্রা বলেই জানাচ্ছে হাওয়া অফিস। মঙ্গলবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৫.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে ২ ডিগ্রি নীচে। বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ ছিল ৩৭ থেকে ৯৭ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় কোনও বৃষ্টি হয়নি। 

পশ্চিমী ঝঞ্ঝা ও পূবালী হাওয়ার সংঘাতে বজ্রবিদ্যুৎ সহ শিলা বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে মধ্যপ্রদেশ ও ছত্তিশগড়ে। বৃহস্পতিবার থেকে ঘন কুয়াশায় ঢাকা থাকবে দিল্লি, পঞ্জাব, হরিয়ানা ও চণ্ডীগড়। শুক্রবার ও রবিবার নতুন করে পশ্চিমী ঝঞ্ঝা ঢোকার সম্ভাবনা রয়েছে উত্তর-পশ্চিম ভারতে।