কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে পরীক্ষা নেওয়াকে  কেন্দ্র করে এবার কেন্দ্র-রাজ্য় সংঘাত  শুরু। পরিস্থিতি এমন জায়গায় গিয়েছে যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে এ বিষয়ে চিঠি লিখেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়। চিঠিতে মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, রাজ্য়ে করোনার আবহে  ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে কলেজ,বিশ্ববিদ্যালয়ে পরীক্ষা নেওয়া বাধ্যতামূলক করাটা উচিত নয়।

সম্প্রতি রাজ্য়ে সব কলেজ-বিশ্ববিদ্য়ালয়গুলিতে  ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্য়ে পরীক্ষা শেষ করার নির্দেশ দেয় মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রক। এই নির্দেশকে ঘিরেই  রাজ্য়ের সঙ্গে কেন্দ্রের মতানৈক্য তৈরি  হয়।  রাজ্য়ের  তরফে চিঠি দিয়ে ইঙ্গিত দেওয়া হয়, এই  সিদ্ধান্ত মানা তাদের  পক্ষে সম্ভব  নয়। নতুন করে এবার একই ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি পাঠালেন মুখ্যমন্ত্রী। 

প্রধানমন্ত্রীকে পাঠানো চিঠিতে মুখ্যমন্ত্রী লেখেন, তিনি ওই নির্ধারিত সময়ের মধ্য়ে পরীক্ষা না  নেওয়ার জন্য় পড়ুয়া ও শিক্ষা মহলের থেকে প্রচুর ইমেল পাচ্ছেন। এরা সবাই ইউজিসির নতুন গাইডলাইন অনুযায়ী পরীক্ষা নেওয়ার বিরুদ্ধে মত দিয়েছেন। সকলেই চাইছেন পড়ুয়াদের আগের পরীক্ষার ফল বিবেচনা করেই চূড়ান্ত ফল প্রকাশ করা হোক।

এদিকে পরিস্থিতি বেগতিক দেখে মীমাংসার পথ খোঁজেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ও। কিন্তু জানা গিয়েছে  আচার্যের ডাকা বৈঠকে হাজির হননি রাজ্যের উচ্চ শিক্ষা দফতরের প্রধান সচিব। এমনকী রাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয়গুলির উপাচার্যদের সংগঠনও ইউজিসির নির্দেশ মানবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে। সিদ্ধান্ত হয়েছে, ইউজিসির নতুন গাইডলাইন অনুযায়ী নয়,রাজ্য সরকারের নির্দেশিকা অনুযায়ী পরীক্ষা নেওয়া হবে কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ে।