শনিবার থেকেই রাজ্য়ে বার, রেস্তরাঁ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য় সরকার। আপাতত বন্ধ করতে বলা হয়েছে স্পা, পার্লার, হুক্কাবারের মতো জায়গা। করোনা আতঙ্কে কোনও প্রকার ঝুঁকি নিতে চাইছে না মমতার সরকার। তাই সপ্তাহ শেষের দিকেই নেওয়া হল এই সিদ্ধান্ত।

করোনা ভাইরাস নিয়ে দমদম জেলে ধুন্ধুমার, বন্দিদের দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষে রণক্ষেত্র এলাকা

তবে করোনা আতঙ্কের জেরে এরফলে মারাত্মক ক্ষতির মুখে পড়বে ব্য়বসা। ইতিমধ্য়েই একের পর এক আউটলেট বন্ধ করে দিয়েছে বিভিন্ন খাবার পরিবেশনকারী সংস্থা। য়ার জেরে রাতারাতি  বেকারত্বের পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে রাজ্যে। পশ্চিমবঙ্গের সাম্প্রতিক পরিস্থিতি বলছে, করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে বাইরে যাওয়া প্রায় বন্ধ করে দিয়েছেন স্পা,পার্লারের গ্রাহকরা।  

রেল পরিষেবা বন্ধ, জনতা কারফিউতে চালু থাকবে মেট্রো

রবিবারই জনতা কারফিউয়ের ডাক দিয়েছেন  প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।  সেই অনুযায়ী আজ রাত থেকেই রেল পরিষেবা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেল বোর্ড। আগামীকাল সকাল ৭টা থেকে রাত নটা পর্যন্ত সবাইকে ঘরে থাকার কথা বলেছেন মোদী। বিকেল পাঁচটার সময় ছাদে, বারান্দায় দাঁডি়য়ে করোনা মোকাবিলায় যে স্বাস্থ্য় করমীরা  কাজ করছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞাতা  জানাতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী। 

১৫ এপ্রিল পর্যন্ত স্থগিত উচ্চ মাধ্যমিক , করোনার ভয়ে বাতিল ২৩-২৫ মার্চের পরীক্ষা

কাসর,ঘণ্টা বাজিয়ে তাঁদের অভিবাদন জানানোর আ্হবান জানিয়েছেন তিনি। ইতিমধ্য়েই প্রধানমন্ত্রী এই ডাকে সাড়া পরে গিয়েছে। সোশ্য়াল মিডিয়ায় প্রধানমন্ত্রীর  এই ডাককে স্বাগত জানিয়েছেন বহু মানুষ । দেশের বিপদের সময়ে সবাইকে সাহস জুগিয়ে একত্রিত করতে মোদীর এই ডাক কার্যকরী বলে মনে করছেন তাঁরা। 

এদিকে আপাতত স্থগিত করে দেওয়া হয়েছে উচ্চ মাধ্য়মিক পরীক্ষা। আগামী ২৩ ও ২৫ তারিখ এই পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল রাজ্য়ে। আপাতত সেই দুটি পরীক্ষার দিনক্ষণ বাতিল করা হয়েছে। ১৫ এপ্রিলের পর নতুন করে এই দুটি পরীক্ষার দিন ঠিক করবে রাজ্য সরকার।  

এর আগেই ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত স্কুলে ছুটির ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী।  রাজ্য়ে করোনা আতঙ্কের জেরে স্কুল,কলেজ তথা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছুটির ঘোষণা করেন তিনি। রাজ্য়ের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে প্রশাসনের আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন মমতা। বৈঠকেই একাধিক পদক্ষেপ নেয় রাজ্য সরকার। যেখানে রাজ্যে সাম্প্রতিক করোনা পরিস্থিতি পর্যালোচনায় ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী।

পাশাপাশি এই সময়ের জন্য রাজ্যের সব অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রগুলিও বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য়। তবে অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রের বাচ্চাদের জন্য ২ কিলো করে চাল ও অ্য খাবার তাদের বাড়িতে পাঠানোর বন্দোবস্ত করা হবে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। শনিবারই রাজ্য়ে আরও এক করোনা আক্রান্তের খবর পাওয়া গিয়েছে। এবার করোনা আক্রান্ত স্কটল্যান্ড থেকে আসা রাজ্য়ের এক তরুণী ৷ করোনা আক্রান্ত ওই তরুণী উত্তর ২৪ পরগনার হাবড়ার বাসিন্দা ৷ বিদেশ থেকে ফিরে আইসোলেশনে ছিলেন হাবড়ার ওই তরুণী৷ শুক্রবার গভীর রাতে তাঁর লালারস পরীক্ষার রিপোর্ট আসে৷ রিপোর্টে হাবড়ার বাসিন্দার করোনা পজিটিভ ধরা পড়ে৷ এই মুহূর্তে তাঁকে বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে ভর্তি রাখা হয়েছে৷