রেশনকাণ্ডে বিস্তর দুর্নীতির অভিযোগের পর সরানো হয়েছিল রাজ্য়ের খাদ্য়  সচিবকে। এবার করোনার আবহে বিরোধীদের তোপের মুখে পড়ে স্বাস্থ্য় সচিবকে সরাল রাজ্য় সরকার। আপাতত বিবেক কুমারকে সরিয়ে তাঁকে পরিবেশ দফতরের প্রিন্সিপ্য়াল সেক্রেটারি করা হয়েছে। তাঁর পরিবর্তে নতুন স্বাস্থ্য সচিব করা হচ্ছে নারায়ণ স্বরূপ নিগমকে। তিনি ছিলেন পরিবহণ দফতরের সচিব।

নবান্ন সূত্রে খবর,কেন্দ্রীয় সরকারকে পাঠানো চিঠি নিয়ে বিবেক কুমারের ওপর চটেছেন মুখ্যমন্ত্রী। গত ৩০ এপ্রিল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের সচিবকে যে চিঠি বিবেক কুমার পাঠিয়েছিলেন, তাতে রাজ্য়ের ভুল করোনা চিত্র প্রকাশিত হয়েছে বলে খবর। জানা গিয়েছে, সে দিন পর্যন্ত বাংলায় যতজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন বলে রাজ্য সরকারের বুলেটিনে বলা হয়েছিল বাস্তবে সঙ্গে তার মিল ছিল না। দেখা গিয়েছিল, তার থেকে অনেক বেশি রোগী সেই সময়ের মধ্য়ে আক্রান্ত হয়েছিলেন করোনায়।

কালীঘাটে কান পাতলে শোনা যাচ্ছে, বিবেক কুমারের সঙ্গে সেই চিঠি নিয়েই রাজ্য় সরকারের বিতর্কের সূত্রপাত। এই সম্পর্কের ফাটল আরও বাড়ে যখন দুদিন নবান্নের তরফে কোনও করোনা সংক্রান্ত বুলেটিন প্রকাশিত হয়নি। শোনা যায়, করোনার তথ্য় নিয়েই বিবেকের সঙ্গে নবান্নের যাবতীয় সংঘাত ঘটে। 

তবে শুধু এই ঘটনা নয়,কোভিড আক্রান্তের মৃত্যুর কারণ নির্ধারণের জন্য অডিট কমিটি গঠন এবং বারবার বুলেটিনের ছক পরিবর্তন নিয়েও বিবেক কুমারের সঙ্গে কর্তৃপক্ষের সমস্য হচ্ছিল বলে খবর। রাজ্য়ের সাম্প্রতিক অতীত বলছে, রেশন তথা গণবন্টন ব্যবস্থার অনিয়ম ও প্রশাসনিক ব্যর্থতার জন্য এর আগে খাদ্য সচিব পদ থেকে মনোজ আগরওয়ালকে সরিয়ে বাধ্যতামূলক ছুটিতে পাঠানো হয়েছে।