কলকাতা বিমানবন্দর থেকে উড়ে তখন মাঝ আকাশে বিমান। সেই অবস্থাতেই শরীরে বোমা বাঁধা রয়েছে বলে হুমকি দিলেন এক তরুণী। মুহূর্তে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড় মুম্বাইগামী বিমানে। এটিসি- র সঙ্গে যোগাযোগ করে দ্রুত বিমানটিকে কলকাতায় ফিরিয়ে আনেন চালক। শেষ পর্যন্ত অবশ্য ওই তরুণীর শরীরে কিছুই পাওয়া যায়নি। কিন্তু ভুয়ো বোমাতঙ্ক ছড়ানোর অভিযোগে তাঁকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 

পুলিশ সূত্রে খবর, ধৃত তরুণীর নাম মনীষা মণ্ডল। শনিবার রাত দশটা দশ মিনিট নাগাদ এয়ার এশিয়া সংস্থার একটি বিমান কলকাতা থেকে মুম্বাইয়ের উদ্দেশ্য রওনা দেয়। অভিযোগ, কলকাতা ছাড়ার পরই ওই তরুণী লিখিত বার্তা পাঠান পাইলটকে। তাতে ওই তরুণী দাবি করেন, তাঁর শরীরে বোমা বাঁধা আছে। বিমানটিও উড়িয়ে দেওয়া হবে। 

পাইলটের থেকে বিষয়টি জানতে পেরেই বিমানটিকে কলকাতায় ফেরানোর নির্দেশ দেয় এটিসি। সতর্ক করা হয় নিরাপত্তা বাহিনীকে। আপতকালীন পরিস্থিতির জন্য সমস্ত রকম প্রস্তুতি নিয়ে ফেলা হয়। কলকাতা বিমানবন্দরে নামার পর বিমানটিকে আইসোলেশন বে- তে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকেই ওই মহিলা যাত্রীকে নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে তুলে দেওয়া হয়। বিমানটিতে তল্লাশি চালিয়েও কোনও বিস্ফোরক পাওয়া যায়নি। ওই তরুণীর শরীরেও বেঁধে রাখার প্রমাণ পাওয়া যায়নি। 

শেষ পর্বযন্ত ওই তরুণীকে বিমানবন্দর থানার পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়। এ দিন ব্যারাকপুর আদালতে তোলা হলে তাঁর তিন দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক। যদিও কেন তিনি এমন হুমকি দিলেন তা নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে। তরুণী নিজেও এ বিষয়ে কিছু বলতে চাননি। থানায় এলেও অভিযোগ অস্বীকার করেন তরুণীর বাবা- মা।