সরস্বতী পুজো মানেই বাঙালির ভ্যালেনটাইন্স ডে। এই দিন স্কুল কেলেজের পড়ুনায়দের কাছে নেহাতই বাকদেবী বন্দনার দিন নয়, বরং শাড়ি-পাঞ্জাবী পরে সকাল সকাল বেড়িয়ে পড়া বন্ধুদের সঙ্গে দেখা করতে। বাড়িতে-স্কুলে চলা পুষ্পাঞ্জলির পাট তারাতারি সেরে ফেলা। তবে ২০২০-তে সবস্বতী পুজো ঠিক কেমন কাটবে তা নিয়ে অনেকেরই কপালে ছিল চিন্দার ভাঁজ। 

আরও পড়ুনঃ বৃষ্টি দিয়েই বাগদেবীর আরাধনা, সপ্তাহের শেষে জাঁকিয়ে শীতের সম্ভাবনা

বৃষ্টির পূর্বাভাস শুনিয়েছিল আবহাওয়া দফতর। তাই পরিকল্পনা তেমন একটা করে হয়ে ওঠা হয়নি অনেকেরই। কিন্তু বুধবার পঞ্চমী পড়তেই উধাও বৃষ্টি। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে আংশিক মেঘলা আকাশ ও রোদের দেখা মেলে। ফলে খানিক সময় পর থেকেই শহরের ছবিটা পাল্টে যেতে শুরু করে। পথ ঘাট থেকে শুরু করে স্কুল কলেজ, বাড়তে থাকে পড়ুয়াদের ভিড়। এছাড়াও শহরের বুকে বিভিন্ন পার্ক, সিনেমাহল এবং বইমেলা প্রাঙ্গণের চেনা ছবি ধরা পড়ল এই দিন। 

সরস্বতী পুজোয় ফুলের চাহিদা যতটা থাকে, ঠিক ততটাই এই দিন থাকে গোলাপের বাজার। বেলা বাড়তে থাকলে মেলেনা সেভাবে ভালো গোলাপ। তবে এবারের চিত্রটা খানিক বদলাল। বৃষ্টির পূর্বাভাসের জন্য  অনেকেই প্ল্যান বাতিল করে, যার ফলে এবছর বাজারে গোলাপ রইল অনেক। বিক্রি হল না সেভাবে।