ওজন বৃদ্ধি স্বাস্থ্যহানির একটি প্রধান কারণ। অতিরিক্ত জাঙ্ক ফুড খাওয়ার ফলেই ওজন বৃদ্ধির সমস্যা দেখা দেয়। ক্রমাগত ওজন বৃদ্ধি, দীর্ঘস্থায়ী রোগের একমাত্র প্রধান কারণ হতে পারে। পুষ্টিকর উপাদানগুলি জাঙ্ক ফুডে অল্প অল্প পরিমাণেই পাওয়া যায়। জাঙ্ক ফুডের অতিরিক্ত মাত্রায় গ্রহণের কারণে বয়স বৃদ্ধির পক্রিয়া দ্রুত বাড়তে থাকে। আপনি যদি জাঙ্ক ফুডে আসক্ত হন তবে আপনার এই গবেষণা সম্পর্কে জানা উচিত। 

আরও পড়ুন- শুকনো কাশি মানেই করোনা নয়, অযথা আতঙ্ক ভুলে কাজে লাগান অব্যর্থ ঘরোয়া প্রতিকার

জাঙ্ক ফুড সম্পর্কিত অনেক গবেষণায় বলা হয়েছে যে, এই ধরণের খাদ্য গ্রহণের ফলে বার্ধক্যের প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত হয়। মুখের স্বাদ বদলাতে অনেকেই জাঙ্ক ফুড খেতে শুরু করেন। পরে এটি অভ্যাসে পরিণত হয়। তখন এই স্বাদ বদলের নেশা থেকে মুক্তি পাওয়া অসম্ভব হয়ে পড়ে। অতিরিক্ত মাত্রায় জাঙ্ক ফুড খাদ্য গ্রহণের ফলে স্বাস্থ্যের কতটা ক্ষতি হয় তা সবার আগে জানা দরকার।

আরও পড়ুন- রাতে কম ঘুমিয়েও পরদিন থাকুন অ্যক্টিভ, অব্যর্থ টোটকায় কাটিয়ে উঠুন অবসন্নতা

আমেরিকান জার্নাল অফ ক্লিনিকাল নিউট্রিশনে প্রকাশিত একটি গবেষণা অনুসারে, চিনি এবং অত্যধিক প্রক্রিয়াজাত খাবার গ্রহণের কারণে টেলোমোর ছোট হয়ে যাওয়ার দ্বিগুণ ঝুঁকি থাকে। বিশেষজ্ঞদের বিশ্লেষণ অনুসারে, বয়স বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে হয়ে ডিএনএর শেষে ছোট ক্যাপটি সঙ্কুচিত হতে শুরু করে। ডিএনএর এই ক্ষুদ্র ক্যাপটিকে বলা হয় টেলোমোর। এটি প্লাস্টিকের টেপ জুতোর লেস-এর সঙ্গে বেঁধে দিলে যেমন দেখতে হবে, ঠিক তেমন দেখতে। এই টেলোমার চেহায়ার বয়সের প্রভাব ফুটিয়ে তোলে। যখন কোনও ব্যক্তির টেলোমার সঙ্কুঞ্চিত হয় তখন তাঁর চেহাড়ায় খুব দ্রুত বয়সের ছাঁপ পড়ে। টেলোমার ছোট হয়ে যাওয়া মানেই সেই ব্যক্তিকে তাঁর বয়সের চেয়ে অনেক বেশি বয়স্ক বলে মনে হয়।