স্বাদে, গুনে সমৃদ্ধ ভারতীয় মশলা। শুধু রান্নার স্বাদের জন্য আমরা মশলা ব্যবহার করি তোমনটাই কিন্তু নয়।  রান্নার পাশাপাশি ভারতীয় মশলার বিশেষ একটি বৈশিষ্ট্য রয়েছে।  ভারতীয় মশলার বেশিরভাগই আয়ুর্বেদিক গুণে সমৃদ্ধ। সেই মশলা মধ্যে একটি হল জিরে। রান্নার কাজে এর বিশাল ব্যবহার রয়েছে এর পাশাপাশি স্বাস্থ্যগুণেও ভরপুর এই জিরে। জিরে কাঁচা অবস্থায় অথবা ভেজে নিয়ে দুইভাবেই ব্যবহার করা যায়। ভাজা জিরের সুন্দর গন্ধ রান্নার স্বাদকে আরও কয়েকগুণ বাড়িয়ে দেয়। তেমনি রান্নার স্বাদ বাড়ানোর পাশাপাশি জিরের প্রচুর স্বাস্থ্যসম্মত গুণ রয়েছে , সেগুলি জেন নেওয়া যাক।

আরও পড়ুন-যে কোনও সময়েই হতে পারে চিকেন পক্স,জানুন তার প্রতিকার...

হজমে সাহায্য করে

হজামের সহায়ক হিসেবে দীর্ঘদিন ধরেই জিরের ব্যবহার হয়ে আসছে।জিরে খেল হজমে সহায়ক উৎসেচকের ক্ষরণ অনেকটাই বেড়ে যায়। যার ফলে হজম প্রক্রিয়া অনেক তাড়াতাড়ি হয়। এছাড়ও পরিপাকেও সাহায্য করে এই জিরে।

কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে

গবেষণায় জানা গেছে, জিরে খেলে শরীরের ট্রাইগ্লিসারাইড নিয়ন্ত্রিত থাকে। জিরে অনেকে চিবিয়ে খেয়ে নিতে পারেন। আবার ভিজিয়েও খেতে পারেন। জিরে ভেজানো জলের উপকারিতা প্রত্যেকেরই কমবেশি জানা রয়েছে। রাতে এক কাপ জলে এক চামচ জিরে ভিজিয়ে রাখুন। সকালে খালি পেটে উঠে খেয়ে নিন এই জিরের জল। অনেকে আবার গোটা জিরে ফুটিয়ে নিয়ে চা-এর মতোন খান। এই জিরে ভেজানো জল খাওয়ার অনের গুনাগুণ রয়েছে। দেখে নিন একঝলকে।

আরও পড়ুন-সব্জির মূল্যবৃদ্ধিতে মাথায় হাত মধ্যবিত্তের, জেনে নিন আজকের বাজারদর...

  • হজমে সাহায্য করে তার পাশাপাশি পাকস্থলির স্বাস্থ্যের জন্য সহায়ক।
  • শরীরে বাড়তি মেদ ঝরিয়ে ওজন কমাতে সাহায্য করে এই জিরে।
  • অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় হজমের গন্ডগোল কম রাখতে সাহায্য করে এই জিরে।
  • মাতৃদুগ্ধের পরিমাণ বাড়ায় এই জিরে।
  • জিরে খেলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।
  • মধুমেহ রোগের জন্য উপকারী এই জিরে।
  • লিভারের স্বাস্থ্য ভাল রাখে এই জিরে।
  • রক্তাল্পতা দূর করে কর্মক্ষমতা বাড়ায় এই জিরে।
  • জিরে খেলে চুলের জেল্লা বজায় রাখে।
  • বয়সের ছাপ মুছে ত্বকের ঔজ্জ্বলতা বজায় রাখে এই জিরে।
  • ব্রণ দূর করতেও বিশেষ সাহায্য করে জিরে।