প্রেম বলে কয়ে আসে না। কার কখন কাকে ভাল লেগে যাবে, তা কেউই বলতে পারেন না। রাস্তা ঘাটে, স্কুলে, কলেজে কে কোথায় কার উপরে ক্রাশ খাবেন কেউ বলতে পারে না। কিন্তু ক্রাশের সঙ্গে প্রেমটা কতদূর জমবে বা আদৌ প্রেমটাই হবে কি না তা আগে থেকে বলা যায় না। কিন্তু তা বলে চেষ্টা করতে ক্ষতি কী! পছন্দের মানুষকে মনের কথা জানানোয় কোনও ক্ষতি নেই। হাবেভাবেও বুঝিয়ে দেওয়া যায়। কিন্তু এই সময়ে একটু বুদ্ধিও খাটাতে হয়। ভালো লাগার জোয়ারে ভেসে গিয়ে কিছু কাণ্ড করে বসলে পুরোটাই কেঁচে যাবে। তাই জেনে নিন ক্রাশের সঙ্গে মশকরা করা বা ফ্লার্টিং এর সময়ে কী কী করবেন না- 

১) নিজের দর বাড়ানোর খামখা চেষ্টা করবেন না। আপনার উপরেও কতজন ক্রাশ খেয়ে আছে বা কত জন পছন্দ করেন সে সব তাকে শোনানোর প্রয়োজন নেই। আপনাকে নির্বোধ ভাবতে পারেন। 

আরও পড়ুনঃ সঙ্গী কি পরকীয়া করছে গোপনে! ৬ লক্ষণ দেখে বুঝে নিন

২) পছন্দের মানুষ কোনও মজা করেছে  মানেই সেটাতে হেসে গড়িয়ে পড়বেন না। যতটুকু হাসার ততটুকুই হাসুন। অকারণে ক্রাশকে দেখে হাসলে মোটেও তা শোভনীয় নয়। 

৩) ক্রাশকে আকৃষ্ট করার জন্য নিজের ব্যাপারে ঢাক পেটানোর দরকার নেই। ক্রাশের সঙ্গে কথা বলার সময়ে যদি আপনিই বলে যান তা হলে  প্রেমটা হচ্ছে না ধরে নিতেই পারেন। বরং ক্রাশের কথা মন দিয়ে শুনুন। প্রত্যেকে একজন ভালো শ্ৰোতা পছন্দ করেন। 

৪) ক্রাশের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে মিথ্যে কথা বলবেন না। ক্রাশ মুগ্ধ হবে বলে নিজের মক বিরুদ্ধ কথা বলে তাঁকে আকৃষ্ট করার কোনও প্রয়োজন নেই। মেকি হিসেবে ধরা পড়বেন। বরং তাঁর মতের সঙ্গে মিল না হলে উল্টো মতটা ভালো ভাবে জানান। এতে কথাও গভীরে যাবে।