হাঁচি দেওয়ার সময়ে অনেকেই নাক ও মুখ হাত দিয়ে চাপা দেন। সাধারণত আশপাশে থাকা লোকজনের যাতে সমস্যা না হয়, সেই জন্য অনেকে মুখ ও নাক চাপা দিয়ে হাঁচেন। কিন্তু সম্প্রতি এক গবেষণা বলছে, এই অভ্যেস স্বাস্থ্যের পক্ষে খুবই ক্ষতিকারক। এক হেলথ ম্যাগাজিনের প্রতিবেদন থেকে জানা গিয়েছে মুখ ও নাক চাপা দিয়ে হাঁচলে কানের পর্দা পর্যন্ত ফেটে যেতে পারে। 

হাঁচি দেওয়ার সময়ে অনেকেই মুখ ও নাক চাপা দিয়ে  তা আটকাতে চান। কিন্তু এই অভ্যেসে অনেক সময়ে দুই ফুসফুসের মাঝে হাওয়া আটকে যেতে পারে। সেখান থেকে বড় বিপদ ঘটতে পারে। রক্তের কণা গিয়ে মস্তিষ্কে ধাক্কা দিতে পারে। এ ছাড়া গলাতেও আঘাত লাগতে পারে। 

একটি কেস স্টাডিও প্রকাশ করা হয় প্রতিবেদনটিতে। সেখানে বলা হচ্ছে যে হাঁচি দেওয়ার সময়ে হাত মুখ দিয়ে চাপা দেওয়ায় এক ব্যক্তির গলায় জোরে আঘাত লাগে। যার ফলে তিনি বেশ কিছুদিন ঠিক করে কথা বলতে ও খেতে পারেননি। প্রথমে চিকিৎসকরা বুঝতে পারেননি ঠিক কী কারণে গলায় ক্ষত তৈরি হয়েছে। কিন্তু ওই ব্যক্তিই জানান হাঁচির সময়ে তা হাত দিয়ে চাপতে চেয়েছিলেন তিনি। তখন ঘাড়েও মোচড় লেগেছিল তাঁর। এবং তার পর থেকেই এই সমস্য়া শুরু হয়। 

টানা সাতদিন তাঁকে হাসপাতালে নলের মাধ্যমে খাবার খাওয়ানো হয়। এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে চিকিৎসকরা হাঁচি দেওয়ার সময়ে মুখ ও নাক চাপা না দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন।