কথায়ে আছে বাঙালির পায়ের তলায় সরষে। গ্রীষ্ম হোক বা শীত ছুটি পেলেই বাক্স প্যাঁটরা নিয়ে বেরিয়ে পড়ে বাঙালি। আর বাঙালির বেড়ানো মানে পরিবার নিয়ে ছুটি কাটাতে যাওয়া। প্রায় দু মাস আগে থেকে প্রস্তুতি শুরু হয়ে যায়। কিন্তু পরিবারকে নিয়ে বে‌ড়াতে যাওয়া মানে বাড়ির বয়স্ক সদস্যের বিষয়ে অতিরিক্ত সচেতন থাকা। 

অনেক সময়েই বেড়াতে গিয়ে তাঁদের শারীরিক অবস্থার জন্য সমস্যায় পড়তে হয়। বেড়াতে গেলে যে সব জায়গায় চিকিৎসক বা ওষুধের দোকান পাবেন, তা-ও নয়। তাই আগে থেকেই কয়েকটি বিষয় মাথায় রাখতে হয়। 

জেনে নেওয়া যাক বয়স্কদের নিয়ে বেড়াতে গেলে কী কী বিষয় মাথায় রাখতে হবে- 

১) পোশাক প্যাক করার ব্যাপারে যতটা সচেতন থাকেন, তার চেয়েও বেশি মন দিন ওষুধ প্যাক করার ব্যাপারে। ওষুধের সঙ্গে অবশ্যই সঙ্গে রাখুন চিকিৎসকের প্রেসক্রিপশন, রোগীর রিপোর্ট। বেড়াতে গিয়ে শরীর খারাপ করলে এই কাগজগুলি প্রয়োজন পড়বে। 

২) বেড়াতে যাওয়ার প্ল্যান করার আগে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। পাহাড়ে বেড়াতে গেলে হার্টের অবস্থা কেমন তা দেখে নেওয়া প্রয়োজন। যে পরিবেশে যাচ্ছেন, সেই অনুযায়ী কী কী খাওয়া উচিত সেটিও জেনে নিন। 

৩) ট্রেনে গেলে বয়স্ক সদস্যরা যাতে লোয়ার বার্থে শুতে পারেন সেদিকে নজর দিন। ফ্লাইটে গেলে হুইল চেয়ার নিন এঁদের জন্য। 

৪) বেড়াতে গিয়ে চেষ্টা করুন একতলা বা দোতলায় থাকতে। যাতে সিঁড়ি ব্যবহার না করতে হয়। উপরে ঘর নিলে দেখুন লিফট রয়েছে কি না । 

৫) হোটেলে বলুন হালকা খাবার বানাতে। দরকার পড়লে কর্ন ফ্লেকস, ওটস সঙ্গে রাখুন। 

৬) ফ্লাইটে করে গেলে প্রবীণ নাগরিকরা বিশেস সুবিধা পান। সিকিওরিটি চেকের সময়ে সমস্তটা ধীরে সুস্থে করতে বলুন। যাঁদের বুকে পেসমেকার রয়েছেন বিশেষ করে তাঁদের সঙ্গে যাতে তাড়াহুড়ো না করা হয় সেদিকে নজর দিন। 

৭) বয়স্করা যাতে ধুমপান বা মদ্যপান না করেন সেদিকটা দেখুন । তাঁদের সামনে ধূমপান এড়িয়ে চলুন। 

৮)  সবসময়ে বিস্কুট, কিসমিস, বাদাম, কাজু, জলের বোতল সঙ্গে রাখুন। 

৯) ঘুরতে বেরোলে তাড়াতাড়ি হোটেলে ফিরুন।