বাড়িতে হঠাৎ কোনও অতিথি এসে পড়লে চিকেন দিয়ে চটপট কিছু একটা সহজেই বানিয়ে ফেলা যায়। কিন্তু সমস্যাটা হল চিকেন দিয়ে কী বানাবেন? চিলি চিকেন, চিকেন কারি বা চিকেন কষা তো অনেক খেয়েছেন। আজ চিকেনের একটা নতুন মশলাদার রেসিপি চেখে দেখতে পারেন। নতুন স্বাদের এই চিকেনের পদ নান, পরোটা, পোলাও, গরম ভাত সব কিছুর সঙ্গেই জমিয়ে খেতে পারেন। আজ শিখে নিন রেস্তোরাঁর মতো হরিয়ালি মুর্গ মশালা বানানোর সহজ কৌশল।

হরিয়ালি মুর্গ মশালা বানাতে লাগবে:—

চিকেন: ১ কেজি (বড় বড় টুকরো করে কাটা)
পেঁয়াজ: ২টো (মাঝারি)
পুদিনা পাতা: ২ আঁটি
ধনেপাতা: ৫-৬ আঁটি
কাঁচালঙ্কা: স্বাদ মতোন
দই: ১ কাপ
নারকেলের দুধ: ১ কাপ
রসুন: ৬ কোয়া বাটা
আদা: আড়াই ইঞ্চি বাটা
লেবুর রস: ১ টেবল চামচ
গোটা গোলমরিচ: ১০টা
ছোট এলাচ: ৪টে
লবঙ্গ: ৪টে
দারচিনি: ২ ইঞ্চি মাপের এক টুকরো
তেজপাতা: ২টো
জিরে গুঁড়ো: ১ চা চামচ
ধনে গুঁড়ো: ১ টেবল চামচ
লবন: স্বাদ মতোন
তেল: ২ টেবল চামচ

যে ভাবে বানাবেন:—

পেঁয়াজ, পুদিনা পাতা, ধনেপাতা, কাঁচালঙ্কা, লেবুর রস, আদা, রসুন, গোটা গোলমরিচ এক সঙ্গে বেটে নিন।
এ বার কড়াইতে তেল গরম করে ছোট এলাচ, লবঙ্গ, দারচিনি, তেজপাতা ফোড়ন দিন।
এরপর চিকেন দিয়ে ২ থেকে ৩ মিনিট দুই পিঠ ভাল করে ভাজুন।
এরপর জিরে গুঁড়ো, ধনেগুঁড়ো এক সঙ্গে জলে গুলে মিশিয়ে নিয়ে কড়াইতে ঢেলে নিন।
মশলা ভালো করে চিকেনের গায়ে মাখা হয়ে গেলে পেঁয়াজ, পুদিনা ও ধনেপাতা বাটার মিশ্রণ ঢেলে দিয়ে নেড়েচেড়ে ভাল করে মিশিয়ে লবন দিন। ঢাকা দিয়ে সামান্য আঁচে ১৫ মিনিট রান্না হতে দিন।
গ্রেভি শুকিয়ে এলে জল দিন প্রয়োজন মতো। ১৫ মিনিট পর দই ও নারকেলের দুধ দিন।
এ বার মাঝারি আঁচে ১০ থেকে ১২ মিনিট রাখুন, যতক্ষণ না চিকেন নরম হচ্ছে ও নারকেলের দুধ পুরোপুরি রান্না হচ্ছে।
চিকেন নরম হয়ে গ্রেভি প্রায় শুকিয়ে এলে আঁচ থেকে নামিয়ে নিন।
নান, পরোটা, পোলাও বা গরম ভাতের সঙ্গে গরম গরম পরিবেশন করুন মুখরোচক হরিয়ালি মুর্গ মশালা।