একদিকে করো আতঙ্ক আর অন্যদিকে দীর্ঘদিনের লকডাউন, যার জেরে নাজেহাল গোটা বিশ্ব। এবার কোপ পড়েছে আসন্ন বিয়েতে। করোনা ঝড় সামলাতে গিয়ে বিশ্ববাসীর হিমশিম অবস্থা। করোনাকে রুখতেই সমস্ত রকম ধর্মীয়, সামাজিক জমায়েত , অনুষ্ঠান বন্ধ করা হয়েছিল। এমনকী বিয়ে থেকে অন্নপ্রাশন আরও নানান অনুষ্ঠানও বাতিল করা হয়েছিল। তবে বর্তমানে করোনা পরিস্থিতিতে লকডাউন খানিকটা শিথিল হয়েছে। পঞ্চম দফার লকডাউনে শুরু হয়েছে আনলক ১। সামনেই হয়তো অনেকের বিয়ের তারিখ। কী করবেন আর কী করবেন না এই নিয়েই দিশেহারা হবু নবদম্পতিরা।

আরও পড়ুন-স্ক্যাল্পে ফাংগাস ইনফেকশন,বর্ষায় চুলের যত্নে রইল ঘরোয়া ম্যাজিক...

সারা দেশ জুড়ে করোনা আতঙ্কে নাজেহাল বিশ্ববাসী। একের পর এক শহরে মুহূর্তের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ছে এই রোগ। এই পরিস্থিতিতে বাঁচার একটাই রাস্তা হোম আইসোলেশন। করোনা থেকে নিজেকে আটকাতে আপাতত সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, এবং একা থাকাই সবথেকে বেস্ট অপশন। কিন্তু  আইসোলেশনই সঠিক পদক্ষেপ তাই নয়। দূরত্ব বজায় রেখে অনায়াসেই সেরে নিতে পারেন বিবাহ পর্ব। ভাবছেন তো কীভাবে সম্ভব। কয়েক পদক্ষেপ মেনে চললেই যে কোনও সামাজিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করতে পারেন আপনি। তবে অবশ্যই মাথায় রাখতে হবে কিছু বিষয়।

 

 

প্রথমত, যে কোনও জমায়েত করলেই এখন পুলিশি প্রশাসনের অনুমতি দরকার। অনুমতি না নিয়ে বিয়ের অনুষ্ঠানের আয়োজন করবেন না।

বিগ বাজেটের ওয়েডিং এই মুহূর্তে ভুলে যেতে হবে। কারণ বেশি লোক সমাগমে বিপদের ঝুঁকি রয়েছে।

পরিবারের লোকজন এবং ঘনিষ্ঠ বন্ধুবান্ধবদের নিয়ে জীবনের এই বিশেষ দিনটি উদযাপন করতে হবে।

সামাজিক দূরত্বকে ভুলে গেলে চলবে না। বিয়ের প্রথম প্রাধান্যই হবে সামাজিক দূরত্ব। 

পুরো অনুষ্ঠানটি ৬ ফুটের দূরত্ব বজায় রেখেই আয়োজন করতে হবে। প্রয়োজনে ভালো কোনও ওয়েডিং প্ল্যানারের সঙ্গে কথা বলে পুরো বিষয়টি আয়োজন করুন।

হাতে হাত মেলানো, জড়িয়ে ধরা, এসব এখন অতীত। সব ভুলে সনাতন ভারতীয় রীতিতে নমস্কার জানান।

অনুষ্ঠানের  আগে গোটা এলাকা স্যানিটাইজ করা, আমন্ত্রিত সকলকে মাস্ক, গ্লাভস পরা বাধ্যতামূলক করা, স্যানিটাইজ ব্যবহার করা বাধ্যতামূলক। এই বিষয়গুলি ভুলে গেলে চলবে না।

বর্তমানে ওয়েডিং ড্রেসের সঙ্গে ম্যাচ করা মাস্ক ফ্যাশন ট্রেন্ডিং। করোনার কথা মাথায় রেখে সমস্ত দোকানেই এই ট্রাডিশন ফলো করা হচ্ছে। যা অন্যানযদের তুলনায় হটকে হবে।

সুতরাং অযথা বিয়ের তারিৎখ না পিছিয়ে মনের মানুষের সঙ্গে ওই দিনে বিয়ে করুন। শুধু মাথায় রাখুন কিছু সুরক্ষা টিপস।