ভারতীয় বাঙালি সাঁতারু আরতি সাহা। তিনি মাত্র চার বছর বয়স থেকেই সাঁতার শেখা শুরু করেছিলেন। পরবর্তীকালে খ্যাতনামা সাঁতারু মিহির সেন তাকে ইংলিশ চ্যানেল অতিক্রম করতে অণুপ্রাণিত করেছিলেন এবং ১৯৫৯ সালে প্রথম এশীয় মহিলা সাঁতারু হিসাবে তিনি ইংলিশ চ্যানেল অতিক্রম করেন। শুধু তাই নয় ১৯৬০ সালে প্রথম ভারতীয় মহিলা ক্রীড়াবিদ হিসাবে পদ্মশ্রী সম্মানে ভূষিত হন।

প্রতিটি বিশেষ উপলক্ষে বা কোনও নির্দিষ্ট ব্যক্তির স্মরণে রাখার জন্য গুগল নিজস্ব বিশেষ ডুডল তৈরি করে। আজও গুগল বিশেষ ডুডল দিয়েছেন একজন বিখ্যাত সেলিব্রিটির কথা স্মরণ করেছেন। আসলে আজ সাঁতারু আরতি সাহার ৮০ তম জন্মদিন এবং গুগল তার সম্মানে আজকের ডুডল তৈরি করেছে। আরতি সাহা প্রথম এশিয়ান মহিলা যিনি ইংলিশ চ্যানেলে সাঁতার কাটেন। আরতি সাহা ১৮ বছর বয়সে প্রথম ইংলিশ চ্যানেলটি অতিক্রম করার চেষ্টা করেছিলেন কিন্তু তিনি সফল হননি। তবে তিনি হালও ছাড়েননি। এক মাস পরে, তিনি এই কার্য সম্পন্ন করেছিলেন এবং জিতেছিলেন। এই বিজয় ছিল ভারতের মহিলাদের ঐতিহাসিক বিজয়। 

গুগল ডুডল- https://g.co/doodle/vryybry

সাঁতারু আরতি সাহার এমন কীর্তি ছিল যা এভারেস্টে আরোহণের অনুরূপ বলে মনে করা হয়। তিনি ফ্রান্সের কেপ গ্রিস নেজ থেকে ইংল্যান্ডের স্যান্ডগেটে ৪২ মাইল পর্যন্ত ভ্রমণ করেছিলেন। অলিম্পিকে ভারতের প্রতিনিধিত্বকারী আরতি সাহা পাঁচ বছর বয়সে প্রথম সুইমিং মেডেল জিতেছিলেন। ১১ বছর বয়সে সাহা প্রথম ফিনল্যান্ডের হেলসিঙ্কিতে ১৯৫২ গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকের নবীন স্বাধীন ভারতের প্রতিনিধিত্বকারী সর্বকনিষ্ঠ সদস্য হন এবং ১৯ বছর বয়সে তিনি ইংলিশ চ্যানেল পেরিয়ে বিশ্বকে অবাক করেছিলেন।