যতই বাজারে শুকনো লঙ্কার গুঁড়ো পাওয়া যাক, কাঁচালঙ্কাকে টেক্কা দেওয়া মোটেও সহজ নয়। এলাহি কোনও রান্না নয়। গরম আলুসেদ্ধ, মাখন ভাতের সঙ্গে একটা কাঁচালঙ্কা থাকলেই পেট ভরে যায়। অথবা একটি ডিম পোচের উপরে কাঁচালঙ্কা কুচি। কিংবা ফুচকা খাওয়ার সময়ে কাঁচা লঙ্কা মুখে পড়লে তার স্বাদ কয়েক গুণ বেড়ে যায়। 

তাই যেমন মশলাই হোক, বাঙালির পাত থেকে কাঁচালঙ্কার জায়গা কেউ নিতে পারবে না। তবে শুধুই স্বাদের জন্য নয়। কাঁচা লঙ্কার মধ্যে রয়েছে অজস্র গুণ, যা শরীরের পক্ষে খুবই উপকারী। খেতে যতই ঝাল হোক, তাই কাঁচা লঙ্কাকে না এড়ানোই ভাল। জেনে নেওয়া যাক, কাঁচালঙ্কা খেলে কী কী উপকার পাবেন- 

১) কাঁচালঙ্কা ভিটামিন-সি সমৃদ্ধ। এছাড়া অ্যান্টি  অক্সিড্য়ান্ট থাকে। ফলে কাঁচালঙ্কা শরীরকে জ্বর,সর্দি কাশি ইত্যাদি থেকে বাঁচায়।

আরও পড়ুনঃ মধুর ব্যবহারে এই উপকারগুলি পেতে পারেন, দেখুন ডেইলি লাইফস্টাইল

২) পুরুষদের প্রস্টেট ক্যানসারে ঝুঁকি কমাতে কাঁচালঙ্কা কার্যকরী।  স্নায়ুরোগ নিরাময়েও কাজে লাগে রান্নাঘরের এই উপাদান। 

৩) খেতে ঝাল। কিন্তু কাঁচালঙ্কা খাবার হজমে মহৌষোধির মতো কাজ করে। 

২) কাঁচালঙ্কায় পর্যাপ্ত পরিমাণে ভিটামিন থাকে। ভিটামিন থাকায় হাড়, দাঁত ও মিউকাস মেমব্রেনকে ভাল রাখতে সাহায্য করে কাঁচালঙ্কা। 

৩) কাঁচালঙ্কা খেলে শরীরে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমতে থাকে বলে জানাচ্ছেন পুষ্টিবিদরা। 

৪) অ্যান্টি অক্সিড্য়ান্ট থাকার ফলে ক্যানসারের বিরুদ্ধে লড়তে সক্ষম কাঁচালঙ্কা। 

৫) কাঁচালঙ্কা খেলে মস্তিষ্কে একটি হরমোন নিঃসৃত হয়। এর কারণে মন মেজাজ ভাল থাকে। তাই মন খারাপের সময়ে একটি কাঁচালঙ্কা খেয়ে নিলেই কেল্লা ফতে। 

৬)অ্যান্টি অক্সিড্যান্ট ও ভিটামিন-সি থাকার জন্যই কাঁচালঙ্কা ত্বকের জন্যও ভাল। মুখে বলিরেখা পড়তে দেয় না।  তাই রোজ একটি করে অবশ্যই খান। 

৭) কাঁচালঙ্কা মস্তিষ্কে রক্ত জমাট বাঁধতে দেয় না।