বাড়িতে কেবলমাত্র একটা পোষ্য রাখতে ইচ্ছে করছে বলেই নতুন অতিথিকে নিয়ে আসা নয়। বরং তাদের উপস্থিতিতে শরীরের অনেক সমস্যা এক মুহুর্তে লাঘব হয়ে যায়। এক গবেষণায় দেখা গিয়েছে যাঁরা নানা রকমের শারীরিক অসুস্থতায় ভোগেন তাদের বাড়িতে পোষ্য রাখলে শরীর অনেকটা ভালো হয়ে ওঠে।

আরও পড়ুনঃ বাড়িতে আদরের পোষ্য! বেড়াতে যাওয়ার আগে মাথায় রাখুন এই ৭টি বিষয়

জানুন বাড়িতে পোষ্য রাখার উপকারিতাঃ
১) একাকিত্ব দূর হয়। বাড়িতে পোষ্য রাখলে একাকিত্ব অনেকাংশে কেটে যায়। তাকে নিয়ে বেশ কিছুটা সময় ব্যস্ত থাকা, তার যত্ন রাখা, ফলে ডিপ্রেসনের সমস্যা কমে যায়।
২) শরীর সুস্থ থাকে। পোষ্যকে নিয়ে দুবেলা বেড়াতে গেলে শরীরের ব্যায়ম হয়। এতে শরীর অনেক বেশি সুস্থ থাকে। 
৩) পোষ্য বাড়িতে থাকলে অনেকখানি আত্মবিশ্বাস বেড়ে যায়। এক গবেযণায় এ বিষয়টি প্রমাণিত। বাড়িতে একা থাকা বা বয়সকালে কেউ পাশে না থাকলে অনেকটা নির্ভর হয়ে ওঠা যায় পোষ্যের ওপর।
৪) বাড়িতে শিশুর সঙ্গেই যদি পোষ্যকে রেখে দেওয়া হয়, তবে তাদের অ্যালার্জি প্রতিরোধের ক্ষমতা অনেকাংশে বেড়ে যায়।
৫) যারা উচ্চরক্তচাপে ভোগেন তারা যদি পোষ্য নিয়ে ব্যস্ত থাকেন তবে তাদের রক্তচাপ অনেকখানি আয়ত্বে থাকে। 
অতএব বাড়িতে পোষ্য রাখার মানেই যে সৌখিনতা, এমনটা নয়। শরীরের নানা সমস্যা মেটাতেও পোষ্যর ভুমিকা অনস্বীকার্য।