অফিসের বসের চোখ রাঙানি হোক বা ভিড় বাসে ধাক্কাধাক্কি, বাড়ি ফিরে পোষ্যর মুখটা একবার দেখতে পেলেই মন ভাল হয়ে যায়। যাঁরা পশুপ্রেমী হন তাঁরা জানেন এক মুহূর্ত পোষ্য় চোখের আড়াল হলে কেমন লাগে। বিশেষ করে বেড়াতে গেলে এঁদের সমস্যা পড়তে হয়। বাড়িতে প্রিয় পোষ্য থাকলে তাকে কোথায় রাখা যায় ইত্যাদি ভেবে ভ্রমণের পরিকল্পনাই শেষে  বাতিল করতে হয়। 

বেড়াতে গেলে যে বিষয়গুলি মাথায় রাখবেন- 

১) খুব ঘনিষ্ঠ আত্মীয় বা বন্ধুদের বাড়িতে পোষ্যকে রেখে যান। সঙ্গে পোষ্যের প্রয়োজনীয় খাবার, ওষুধ, ইত্যাদি রেখে যান। তবে যাঁরা পশু ভালোবাসেন হাতেই নিজের প্রিয় ছানাকে রেখে যাবেন। 

আরও পড়ুনঃ কনট্যাক্ট লেন্স পরে চোখের মেক আপ! মাথায় রাখুন ৫টি বিষয়

২) পোষ্যদের ক্রেশ বা ফস্টার হোম হয়। বাইরে বেড়াতে গেলে, তাকে ফস্টার হোমে রেখে যেতে পারেন। কিন্তু সেখানে খাঁচায় রাখতে হবে। 

৩) বাড়িতে দেশি বিড়াল থাকলে, তার সঙ্গে বাইরের বিড়ালদের আলাপ হয়ে যায়। তাই বেড়াতে গেলে প্রতিবেশী বিড়ালদের সঙ্গে ছেড়ে যেতে পারেন। তবে বড় রাস্তায় বাড়ি হলে বাড়ির সামনে গাড়ি ঘোড়া চললে সেটা খুব একটা নিরাপদ নয়। 

৪) কোনও পশুপ্রেমী প্রতিবেশীর বাড়িতেও রেখে যেতে পারেন আপনার প্রিয় পোষ্যকে। 

৫) আপনি যেমন পোষ্যকে না দেখতে পেলে চিন্তায় পড়ে যান, তেমনই সেও কিন্তু আপনাকে না দেখলে চিন্তা করে। একাকিত্বে ভোগে। তাই তাকে একা বাড়িতে রেখে যাবেন না। এতে খাওয়া দাওয়া না পেয়ে সে অসুস্থ হয়ে পড়তে পারে। 

৬) সবথেকে ভাল হয় যদি আপনি তাকে সঙ্গে করে বেড়াতে নিয়ে যেতে পারেন। ট্রেনে গেলে ফার্স্ট ক্লাসের টিকিট কাটাই ভাল। না হলে স্টেশনের পার্সল অফিসে যোগাযোগ করে পোষ্যের জন্য টিকিট কাটুন। 

৭) পোষ্যের ওজন ৫ কেজির মধ্যে হলে তাকে বিমানের কেবিনে করে নিয়ে যেতে পারেন। কিন্তু এক একটি বিমান সংস্থায় এক এক রকমের নিয়ম।