Keratin Treatment- বাড়িতে বসেই হবে চুলের কেরাটিন ট্রিটমেন্ট, ব্যবহার করুন রোজকার এই সবজি

| Sep 29 2022, 12:13 AM IST

Keratin Treatment- বাড়িতে বসেই হবে চুলের কেরাটিন ট্রিটমেন্ট, ব্যবহার করুন রোজকার এই সবজি

সংক্ষিপ্ত

এই ক্রিম পুরো চুলে লাগান। এই ক্রিমটি সারা চুলে লাগানোর পর চুল আঁচড়ান। এতে সারা চুলে ক্রিম সঠিক পরিমাণে ছড়িয়ে যাবে. এরপর প্লাস্টিকের ক্যাপ দিয়ে চুল ঢেকে রাখুন এবং ২ ঘণ্টা পর পরিষ্কার জল দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। এখন দেখবেন আপনার চুল স্বাভাবিকভাবেই সোজা ও নরম হয়ে গেছে।

চুল সুন্দর করতে মহিলারা অনেক টাকাই খরচ করেন। পার্লারে গিয়ে নিয়মিত চুলের যত্ন না হোক, বাড়িতে নানা ভাবে যত্ন চলেই। চুলের চিকিত্সা থেকে শুরু করে ঘরোয়া প্রতিকার, প্রতিটি মহিলাই তার চুলকে মজবুত, নরম এবং সুন্দর করার জন্য সমস্ত ধরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করেন। চুলের চিকিত্সার জন্য পার্লারে যাওয়া কিছুটা ব্যয়বহুল হতে পারে, তবে আপনি কি জানেন যে লেডি ফিঙ্গার বা ঢেঁড়শ ব্যবহার করে কেরাটিন চিকিত্সা করা যেতে পারে। 

হ্যাঁ, ঢেঁড়শ বা ভেন্ডি ব্যবহার করে চুলের কেরাটিন ট্রিটমেন্ট করা যায়। যার কারণে চুল হয়ে ওঠে নরম ও ঝলমলে। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক কিভাবে ভেন্ডি বা ঢেঁড়শ দিয়ে কেরাটিন ট্রিটমেন্ট করবেন

Subscribe to get breaking news alerts

এর পদ্ধতি ও উপকারিতা 

কেরাটিন চিকিৎসার অর্থ

প্রথমে কেরাটিন চিকিৎসা কি তা জেনে নেওয়া যাক। আসলে, এটি চুলের জন্য এক ধরনের রাসায়নিক চিকিত্সা, যা ব্যবহার করে এটি চুল সোজা এবং নরম করতে সাহায্য করে। এই চিকিত্সার পরে, এটি চুলকে প্রাকৃতিকভাবে নরম, চকচকে এবং সোজা করতে সাহায্য করে।

ঢেঁড়শ দিয়ে কেরাটিন চিকিত্সা কীভাবে করবেন

ঢেঁড়শ দিয়ে কেরাটিন চিকিত্সার জন্য, প্রথমে এই সবজি থেকে একটি কেরাটিন ক্রিম তৈরি করুন। এর জন্য ১৫-২০টি লেডিফিঙ্গার ছোট ছোট টুকরো করে এক কাপ জলে ফুটিয়ে নিন। ফুটে উঠার পর ঠাণ্ডা করে পিষে নিন। তারপর একটি সুতির কাপড়ের সাহায্যে এই পেস্টটি ফিল্টার করুন। তারপর এতে ১ চা চামচ কর্ন ফ্লাওয়ার ও জল মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এবার এই পেস্টটি অল্প আঁচে কিছুক্ষণ রান্না করুন। এবার নারকেল তেল এবং এক চা চামচ বাদাম তেল মিশিয়ে মিশিয়ে নিন। আর কেরাটিন ক্রিম নিন রেডি।

কেরাটিন ক্রিম লাগানোর টিপস: 

এই ক্রিম পুরো চুলে লাগান। এই ক্রিমটি সারা চুলে লাগানোর পর চুল আঁচড়ান। এতে সারা চুলে ক্রিম সঠিক পরিমাণে ছড়িয়ে যাবে. এরপর প্লাস্টিকের ক্যাপ দিয়ে চুল ঢেকে রাখুন এবং ২ ঘণ্টা পর পরিষ্কার জল দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। এখন দেখবেন আপনার চুল স্বাভাবিকভাবেই সোজা ও নরম হয়ে গেছে।

চুলে ঢেঁড়শ ব্যবহারের উপকারিতা: 

ঢেঁড়শের ব্যবহার চুলকে প্রাকৃতিকভাবে নরম ও ঝলমলে করতে কাজ করে। প্রকৃতপক্ষে, এতে ভিটামিন সি, ভিটামিন এ, ক্যালসিয়াম, ফাইবার, আয়রন, বিটা কেরাটিন, ম্যাগনেসিয়াম এবং ফোলেট অ্যাসিডের মতো বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা চুলে পুষ্টি জোগায় এবং চুলকে নরম, চকচকে ও সোজা করে।