মানব শরীরের অত্যন্ত সংবেদনশীল অঙ্গ হল চোখে। তাই অসাবধানতাবশত চোখে কোনও ধূলো বালি ঢুকে পড়লে কতটা অস্বস্তি হয়, সেই বিষয়ে ধারণা প্রায় সকলেরই আছে। তবে সম্প্রতি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এমন এক ঘটনা ঘটেছে যা রীতিমতো হতবাক করেছে সকলকে। বছর ছয়েকের একটি বাচ্চার চোখে প্রায় ৯ ঘন্টা এঁটে বসেছিল জ্যান্ত গুবরে পোকা।

আরও পড়ুন- ক্রমশ নিস্তেজ হচ্ছে সূর্য, ধারাবাহিক ভূমিকম্প ও প্রাকৃতিক দুর্যোগের আশঙ্কা বিজ্ঞানীরা

শুনতে অবাক লাগলেও, ঘটনাটি একেবারেই সত্যি। কারণ ঘটনার ছবি দিয়ে পোস্ট করা হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে। আসলে সন্ধের পর থেকেই বাচ্চাটির চোখে খুব যন্ত্রণা শুরু হয়। ফলে তার মা ক্রিস মঙ্ক, তাকে চোখ বার বার ধুঁতে বলেন। তবে চোখে জলের ঝাপটা দিয়েও কিছুতেই যন্ত্রণা কমছে না। বাচ্চাটির মা ক্রিস ভালো করে নিরিক্ষণ করেও চোখের ভিতরে কিছু খুঁজে পাননি। এমন ভাবে কিছুক্ষণ কাটার পর যন্ত্রণা এতটাই বেড়ে ওঠে যে কাঁদতে শুরু করে বাচ্চাটি। সেই সময় তাঁর মায়ের  নজরে আসে, চোখের ভিতর কালো রঙের কিছু একটা দেখা যাচ্ছে। ততক্ষণে বাচ্চাটির চোখ লাল হয়ে ফুলে উঠেছে।

 

(Notice: I do not accept friend requests from those I do not know. Everyone is welcome to either message me or follow my...

Posted by Kris Monk on Wednesday, 29 April 2020

 

এমন অবস্থায় রাত দেড়টা নাগাদ তড়িঘড়ি স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় বাচ্চাটিকে। সেখানেই পরীক্ষা করার পর চিকিৎসকরা জানান, বাচ্চাটির চোখে থাকা কালো বস্তুটা আসলে একটা জ্যান্ত গুবরে পোকা। যা টানা ৯ ঘন্টা ধরে চোখের ভিতর কামড়ে আটকে ছিল। আর কান্নাকাটি করার ফলে সেটি চোখের সাদা অংশে চলে আসে। এর পরে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা ওষুধপত্র দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয় বাচ্চাটিকে। তার চোখ এখন ভালোই আছে বলে জানিয়েছে হাসাপাতালের চিকিৎসকেরা।