মিশিগানের ফোর্ড পরিবার, বংশপরম্পরায় কেক তৈরি করাই এদের পেশা। পরিবারের এই ঐতিহ্য বজায় রাখতেই ফিডেলিয়া ফোর্ড ১৮৭৮ সালের বড়দিনের উৎসবে এই পরিবারের জন্য একটি ফ্রুট কেক বানিয়েছিলেন। যা আজও ১৪০ বছর ধরে উত্তরাধিকার সূত্রে হস্তান্তরিত করা হয়। এই বছরের ক্রীসমাসে এই কেক-টির বয়স হবে ১৪১ বছর। 

১৮৭৮ সালেই ৬৫ বছর বয়সে মৃত্যু হয় ফিডেলিয়া ফোর্ড-এর। এরপর ফিডেল-এর নাতি মরগান ফোর্ড ৯৩ বছর ধরে এই কেক রক্ষা করেছিলেন। টানা ৯৩ বছর এই কেক রক্ষার পর, ২০১৩ সালে মৃত্যু হয় মরগান ফোর্ড-এর। বর্তমানে মরগান ফোর্ড-এর কন্যা জুলি রুটিংগার উত্তরাধিকার সূত্রে এই কেক রক্ষা করছেন। বর্তমানে এই কেক-টি একটি কাঁচের ট্রেতে সংরক্ষণ করা হয়েছে।

এই বিষয়ে অত্যন্ত গর্বিত জুলি। স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম-কে তিনি জানিয়েছেন, তাঁর বাবা মৃত্যুর আগে এই কেক-কে মহামূল্যবান বলে জানিয়েছেন করেছেন। 'বংশের ঐতিহ্যবাহী এই কেক-এর দায়িত্ব আমার হাতে তুলে দিয়ে গেছেন। এই কেক দেখার জন্য চার্চে বা পারিবারিক কোনও অনুষ্ঠানে এটি প্রদর্শণীরও আয়োজন করা হয়ে। দেশের জনৈক ব্যক্তিত্বরা উপস্থিত হন, শুধুমাত্র আমাদের বংশের এই ফ্রুট কেকটি দেখার জন্য। এটি আমার কাছে অত্যন্ত গর্বের বিষয়। '

সম্প্রতি ক্রিসমাস উপলক্ষ্যে স্যোশাল মিডিয়ায় বাবা মরগান ফোর্ড-কে উইস করেছেন তিনি। বাবার ও কেক-এর ছবিটি পোস্টও করেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।