নিমপাতা নামটা শুনলেই গায়ে জ্বর আসে অনেকেরই। কিন্তু নিমপাতার উপকারিতা জানলে হয়তো চমকে যাবেন অনেকেই। নিমের ডাল, পাতা  সবই কাজে লাগে। নিমের কাঠ খুবই শক্ত হয়, তাই নিম গাছে উইপোকা বাসা বাঁধে না। স্বাস্থ্যের জন্য দারুণ কার্যকরী এই নিমপাতা, এর পাশাপাশি সৌন্দর্যেও অনেক গুণ রয়েছে নিমের। ঔষধিগুণে পরিপূর্ণ নিমের কয়েকটি ব্যবহার জেনে নিন এখনই।

আরও পড়ুন-বিয়ের মরশুমে অনেকটাই কমল সোনার দাম, জেনে নিন আজকের দর...

নিম তেলে প্রচুর পরিমাণে ফ্যাটি অ্যাসিড এবং ভিটামিন সি থাকে যা ত্বক এবং চুলের জন্য উপকারী।

নিমপাতা ব্যাকটেরিয়া এবং ছত্রাক বিরোধী। ব্যাকটেরিয়ার হাত থেকে ত্বককে সুরক্ষিত রাখতে নিমপাতা খুবই কার্যকরী।

ব্রণর সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে নিমপাতা বেটে লাগাতে পারেন।

ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে নিয়মিত নিমপাতার সঙ্গে কাঁচা হলুদ বেটে লাগান। 

দাঁতের জন্য নিম ডাল খুবই উপকারী। যাদের মুখে দুর্গন্ধ রয়েছে তা দূর করতে এবং ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ থেকে রেহাই পেতে নিম খুবই উপকারী।

কেটে গেলে বা পুড়ে গেল ক্ষত স্থানে নিম পাতার রস লাগান, যা ভেষজ ওষুধের কাজ করে।

নিমপাতা রোদে শুকিয়ে গুঁড়ো করে রেখে পরে ফেসপ্যাক হিসেবেও ব্যবহার করতে পারেন।

আরও পড়ুন-বাড়ি ফিরেও অফিসের কাজ করছেন, অজান্তেই ঘটতে চলেছে বড় বিপদ...

ত্বকের যে কোনও চুলকানিতে নিমপাতা বেটে লাগালে দ্রুত উপকার পাওয়া যায়।

গায়ের দুর্গন্ধ এবং ঘামের দুর্গন্ধ দূর করতে নিমপাতার রস খুবই কার্যকরী।

চুলের সমস্যা ভুগলে নিমপাতা বেটে চুলের গোড়ায় লাগান। নিমপাতার রসে চুলের গোড়া শক্ত হয়, পাশাপাশি চুলের শুষ্কতা এবং রুক্ষ ভাব কমে যায় এবং নতুন চুলও গজায়।

নিয়মিত নিমপাতা খেল কোষ্ঠকাঠিন্য সহ লিভারের নানা সমস্যা দ্রুত সেরে যায়। এর সঙ্গে রক্ত পরিস্কার করতে, শরীর থেকে ক্ষতিকর উপাদান বের করে শরীরকে সুস্থ রাখতে নিমের জুড়ি মেলা ভার।