একদিকে নতুন বছরের শুরু। তার উপর আজ আবার মকর সংক্রান্তি। পিঠে পুলু, পায়েস আরও কত কিছু তো রয়েইছে। কিন্তু এসবের মাঝেও যেন কোথায় একটা ফাক থেকে যায়। নতুন বছর পড়তে না পড়তেই নতুন বছরের রোজালিউশন নিয়ে আমরা প্রত্যেকেই  অনড় থাকি। কিন্তু কয়েক দিন যেতে না যেতেই সেগুলি যেন কেমন এলোমেলো হয়ে যায়। বড়রাই শুধু নয়, বাচ্চারাও একঘেয়েমি স্কুল, টিউশন নানা ব্যস্ততার মধ্যে নিজেদের নিয়ে  যেন হাপিয়ে ওঠে। আর বাচ্চাদের সঙ্গে সঙ্গে তাদের মায়েরাও যেন ততটাই ক্লান্ত হয়ে যায়। এর জন্য চাই রিফ্রেশমেন্ট। তাই সপ্তাহে মধ্যে যে কোনও একদিন সময় করে বাড়িতেই আয়োজন করে ফেলুন কিটি পার্টির। নিজের সন্তান, তার বন্ধু , আপনার বন্ধু সকলকে নিয়ে মেতে উঠুন সেই পার্টির আনন্দে। কীভাবে সহজ উপায়ে এই কিটি পার্টির আয়োজন করবেন রইল তার কিছু টিপস।

আরও পড়ুন-মুখের শেপ অনুযায়ী বেছে নিন বাহারি টুপি, রইল নজরকাড়া ডিজাইন...


বাচ্চা মানেই কিটি পার্টি থেকে ব্রাত্য এটা আর নয়। পরিবারের খুদে সদস্যদের নিয়েই জমিয়ে উপভোগ করুন এই কিটি পার্টি।


পার্টি মানেই ভালমন্দ খাওয়া-দাওয়া। ছোট থেকে বড় সকলেই এই দিনটাতে মন ভরে খেতে পছন্দ করেন। তাই ভাল কোন রেস্তোরাঁ থেকে মনপছন্দ খাবার আনিয়ে নিন।

নতুন বছর মানেই নতুন নতুন প্ল্যান। নতুন বছরে কী করবেন আর কী করবেন না, খুদের সঙ্গে বসে সেই তালিকাটা তৈরি করে নিতে পারেন। এমনকী নিজের বন্ধুদের সঙ্গে কোথাও বেড়াতে গেলে সেই তালিকাটা সেদিনই ঠিক করে নিন।

ঘরের ভিতরেই একটা টেন্ট হাউস বানিয়ে নিতে পারেন। সেখানে নানা ধরনের গল্পের বই, খাবার, রেখে দিন। ঘরের মধ্যে তৈরি করা টেন্টেও দিনটিকে উদযাপন করতে পারেন। এতে আপনার খুদেও বেশ মজা পাবে।

আরও পড়ুন-কোন রাজ্যে কী নাম, জানুন মকর সংক্রান্তির নানা কথা...

তার সঙ্গে এই পার্টিতে প্রত্যেকেই তাদের বাচ্চাদের  টুকিটাকি উপহারও দিতে পারেন। কোনও গেমেরও আয়োজন করতে পারেন। গেমে যে জিতবে তার জন্য একটা সারপ্রাইজ গিফট রাখতে পারেন।

কিটি পার্টি সেলিব্রেশন মানে যেখানে নাচ -গান না হলে পুরো ব্যাপারটাই কেমন যেন ফিকে লাগে। তাই ডান্স ফ্লোরের ব্যবস্থা কিন্তু মাস্ট। সবাই জমিয়ে নাচ করুন।

যারা একটু থ্রিলার পছন্দ করেন। তারা অনায়াসেই একটা থ্রিলার সিনেমা বেছে নিতে পারেন।

কিটি পার্টি করতে করতে সেলফি তুলতে ভুলে গেলে কিন্তু চলবে না। পুরো পার্টি নজরকাড়া ছবি দিয়ে নিজের সোশ্যালেও আপলোড করতে ভুলবেন না যেন।