ত্বকের পাশাপাশি বর্ষাকালে যত্ন নেওয়া প্রয়োজন কসমেটিকস-এরও। কারণ এই সময়েই কসমেটিকসে জন্মায় ব্যাকটেরিয়া। আর ঠিক এই কারনেই বর্ষার সময়েই নষ্ট হয়ে যায় আপনার সাধের দামী প্রসাধনীগুলি। তাই এই মরশুমে একটু বেশিই যত্ন নেওয়া প্রয়োজন এগুলির। এই সময় কসমেটিকস ব্যবহার করার আগেই প্রতিবারই দেখে নিন সেটি ঠিক আছে কিনা। বর্ষায় বাতাসে থাকা আর্দ্রতার কারনে প্রসাধনীগুলিতে ব্যাকটেরিয়া জমতে থাকে। যা থেকে ত্বকে অ্যালার্জি হতে পারে। জেনে নেওয়া যাক কীভাবে বর্ষাকালে যত্নে রাখবেন দামী প্রসাধনীগুলি।
অনেক ক্ষেত্রেই আমরা কসমেটিকস ব্যবহারের পর ঠিক করে সেটি বন্ধ করে রাখি না। বর্ষার জলীয় বাতাস তাতে লাগলেই কসমেটিকস নষ্ট হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে। তাই এই সময় প্রসাধনীগুলি ব্যবহারের পর সব সামগ্রীগুলিতে ঢাকনাগুলি অবশ্যই ভাল করে লাগিয়ে রাখুন, নাহলে আপনার সাধের দামী কসমেটিকসগুলি অযত্নেই নষ্ট হয়ে যাবে।
সাধারনত বর্ষাকালে পাউডার বেসড প্রোডাক্টই বেশি ব্যবহৃত হয়। এই সময় তাই কমপ্যাক্ট ফেস পাউডার, আইশ্যাডো ও অন্যান্য পাউডার বেসড প্রসাধনী সামগ্রীগুলির যত্ন বেশি করে নিন। চেষ্টা করুন এই ধরণের সামগ্রীগুলি শুকনো জায়গায় রাখার চেষ্টা করুন, যাতে কোনওভাবেই সেই  প্রসাধনীগুলিতে ড্যাম্প না ধরতে পারে।
বর্ষায় কোনওভাবে ব্যাগ ভিজে গেলে ব্যাগের মধ্যে থাকা প্রসাধনী সামগ্রীগুলি নষ্ট হওয়ায় সম্ভাবনা বেশি থেকে যায়। তাই বর্ষকালে ব্যাগে প্রসাধনী সামগ্রী নিতে হলে ব্যবহার করুন ওয়াটারপ্র্রুফ কসমেটিকস ব্যাগ।  এতে বৃষ্টিতে ব্যাগ ভিজলেও সুরক্ষিত থাকবে প্রসাধনী সামগ্রীগুলি।
কসমেটিকস-এর পাশাপাশি বর্ষায় যত্ন নিতে হবে মেক আপ ব্রাশগুলিরও। একইভাবে মেক-আপ ব্রাশগুলিতেই বর্ষায় জমতে পারে  ফাংগাস। যা প্রভাব ফেলতে পারে আপনার ত্বকে।