প্রকৃতির বিকল্প কিছু হতে পারে না। বিজ্ঞান যতই উন্নতির দিকে এগিয়ে যাক প্রকৃতির সঙ্গে বোঝাপড়া করতে এখনও অক্ষম। তাই প্রাকৃতিক দুর্যোগ এলে প্রকৃতির দ্বারস্থ হয়ে প্রার্থনা করা ছাড়া আর কোনও উপায় থাকে না। আবার প্রকৃতি থেকে যা উপকার পাওয়া যায় তা কোনও কৃত্রিম ওষুধই দিতে পারে না। তাই প্রকৃতির সঙ্গে যুক্ত থাকলে আদপে সুস্থই থাকা যায়। 

এক নতুন গবেষণা বলছে, প্রকৃতির কাছে থাকলেই মদের নেশাও কাটিয়ে ফেলা যায়। গবেষণা থেকে জানা যাচ্ছে, প্রকৃতির কাছে থাকলে মদ্যপান করার ইচ্ছে কমতে থাকে। ধূমপান ও ক্ষতিকারক খাওয়ার ইচ্ছেও কমতে থাকে প্রকৃতির সংস্পর্শে থাকলে। 

আরও পড়ুনঃ ক্যান্সার রোধ করতে সকালে খালি পেটে খান একমুঠো ভেজানো ছোলা

এই গবেষণার রিপোর্টটি প্রকাশিত হয় জার্নাল অফ হেলথ অ্যান্ড প্লেস-এ। রিপোর্ট থেকেই জানা যাচ্ছে, যত বেশি প্রকৃতি ও সবুজ গাছের কাছাকাছি থাকা যায় ততই এই ধরনের নেশার ইচ্ছে কমতে থাকে। প্রকৃতির মাঝে গিয়ে শরীরচর্চা করলে মদ্যপান ও ধূমপানের ইচ্ছে আরও কমতে থাকে। শরীরে অন্যান্য সমস্য থাকলেও প্রকৃতির সংস্পর্শে থাকলে উপকার পাওয়া যায়। তাই বিশেষজ্ঞরা রোজ অল্প সময় প্রকৃতির সংস্পর্শে থাকার পরামর্শ দিচ্ছেন।  

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগে হওয়া একটি সমীক্ষা থেকে জানা যাচ্ছে, দিনে অন্তত ২০ মিনিটের মধ্য়ে সবুজ গাছপালা, প্রকৃতির সংস্পর্শে থাকতে পারলেই কমতে পারে স্ট্রেস। রোজ নিয়ম করে গাছের তলায় বসে থাকলে বা বাগানে হাঁটলে স্ট্রেস হরমোন অনেকটাই কমে। রোজ না হলেও, সপ্তাহে তিন দিন ২০ মিনিট করে প্রকৃতির মাঝে শরীরচর্চা করলে ভালো ফল পাওয়া যায়। মুক্তি পাওয়া যায় স্ট্রেস ও অবসাদ থেকে।