মাইগ্রেনের ব্যথা কতটা যন্ত্রণাদায়ক, তা ভুক্তভোগীরাই একমাত্র জানেন। মাইগ্রেনের ব্যথা একবার শুরু হলে অবস্থা সঙ্গীন হয়ে ওঠে। বিভিন্ন কারণে মাইগ্রেনের ব্যথা ওঠে। তবে সব সময়ে যে একই কারণে মাইগ্রেনের ব্যথা উঠবে তার কোনও মানে নেই। 

এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের কাছে মথুরা নয়াতি মেডিসিটির চিকিৎসক নীলশ গুপ্তা জানাচ্ছেন ঠিক কী কী করলে মাইগ্রেনের ব্যথা এড়ানো যায়- 

১) মাইগ্রেনের ব্যথার পিছনে অন্যতম কারণ স্ট্রেস। মাইগ্রেনের ব্য়থা থেকে দূরে থাকতে স্ট্রেস কমান। যে বিষয় স্ট্রেস দেয় তার থেকে দূরে থাকুন। 

২) এক ভাবে বসে থেকে কাজ বন্ধ করুন। মাঝে মধ্যে শরীর চর্চা করুন। যোগ ব্যায়াম, মেডিটেশন, হাঁটাচলা, খেলাধূলার মধ্যে নিজেকে রাখুন 

৩) খাওয়া দাওয়ায় বেশিক্ষণের জন্য বিরতি দেবেন না। এতে মাইগ্রেনের ব্যথা বেড়ে যেতে পারে। কাজের চাপে এই ভুলটা আমরা অনেক ক্ষেত্রেই করে থাকি। ওমেগা ৩ ও পুষ্টিগুণে ভরা খাবার খান।  এর মধ্যে রয়েছে স্যামন ফিশ, অলিভ অয়েল। 

৪) বাইরে গিয়ে কাজ করার পেশায় যুক্ত থাকলে সীমাহীন সময়ের জন্য কাজ করবেন না। এতে শরীরে অবনতি হয়। 

৫) নিজেকে হাইড্রেটেড রাখুন। ডিহাইড্রেশন হলে মাইগ্রেনের ব্যথা দ্বিগুণ হয়। দিনে অন্তত ২ লিটার জল খাওয়া উচিত। এতে মাইগ্রেনের ব্যথা অনেকটাই দূরে থাকবে। 

৬) দিনে পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুম প্রয়োজন। চিকিৎসকরা বলছেন দিনে ৭ থেকে ১০ ঘণ্টা ঘুম প্রয়োজন মাইগ্রেনের রোগীদের জন্য। '