শাজাহান আলি, মেদিনীপুর: যতদিন যাচ্ছে, ততই বিপদ বাড়ছে করোনায়। একের এক সরকারি আধিকারিক আক্রান্ত হচ্ছেন পশ্চিম মেদিনীপুর জেলায়। এবার সংক্রমণ ধরা পড়ল কেশিয়াড়ি ব্লকের বিডিও-র। আতঙ্ক ছড়িয়েছে এলাকায়।

আরও পড়ুন: চোপড়া ছাত্রী মৃত্যকাণ্ডে নয়া মোড়, পুলিশের জালে মৃত কিশোরীর বাবা ও দুই দাদা

রাজ্যে সর্বত্রই যখন ছড়াচ্ছে করোনা সংক্রমণ, তখন পশ্চিম মেদিনীপুরই বা বাদ যাবে না কেন! লাফিয়ে লাফিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে জেলায়। বাদ যাচ্ছেন না সরকার আধিকারিকরাও। দিন কয়েক আগে চন্দ্রকোনা ১ নম্বর ব্লকের বিডিও। এবার সেই তালিকায় নাম উঠল কেশিয়াড়ি ব্লকের বিডিও-র।

জানা গিয়েছে, সর্দি-কাশি ও জ্বরের ভুগছিলেন বেশ কয়েকদিন। করোনা নয় তো? লালারস বা সোয়াব পরীক্ষা করান পশ্চিম মেদিনীপুরের কেশিয়াড়ি ব্লকের বিডিও। সোমবার করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। বিডিও-কে  ভর্তি করা হয়েছে কোভিড হাসপাতালে।  সংক্রমণ ঠেকাতে বিডিও অফিসটি সিল করে দিয়েছে প্রশাসন। এদিকে আবার খড়গপুর লাগোয়া বেলদা এলাকায় এক প্রাথমিক শিক্ষকেরও শরীরেও থাবা বসিয়েছে করোনাভাইরাস। গত কয়েকদিন ধরে জ্বরে ভুগছিলেন তিনিও।

আরও পড়ুনবিয়েবাড়ি থেকে ছড়িয়েছে করোনা, পুরুলিয়ায় সাতদিন লকডাউন জারির সিদ্ধান্ত প্রশাসনের

চন্দ্রকোনা ১ ব্লকের বিডিও করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন শালবনি সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে। তাঁর সংস্পর্শে আসায় অতিরিক্ত জেলাশাসক-সহ ১৪ সরকারি আধিকারিকদের লালারস পরীক্ষা করা হয়। তবে সকলেরই নেগেটিভ রিপোর্ট এসেছে বলে জানা গিয়েছে।