ফের তিন খুনে দাঁতাল হাতির শিকার আরও এক শবর সন্তানসহ মা। মদের গন্ধ গ্রামে ঢুকে খোঁজ করতে গিয়ে ৩ খুনে দাঁতাল হাতি মেরে ফেলল তিন বছরের এক শিশু সহ তার মাকে। ঘটনাটি ঘটেছে ঝাড়খণ্ড-বাংলা সীমান্তবর্তী গ্রাম গোয়ালডিহিতে। ঘটনার পরে এলাকায় শোকের যেমন ছায়া, তেমনি আতঙ্কিত গ্রামবাসীরা ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন হাতির নিয়ন্ত্রণ নিয়ে।

নিখোঁজ হার্ট স্পেশালিস্ট ফিরলেন 'স্বামীজি'র বেশে, যার কাহিনি জানলে অবাক হতে হয়

গত এক সপ্তাহ ধরে ঝাড়খণ্ড বাংলা সীমান্তের গোয়ালডিহি ও পাশাপাশি গ্রামগুলিতে দাপিয়ে চলছে তিন খুনে দাঁতাল হাতি। প্রতিদিনই গ্রামে ঢুকে গ্রামবাসীদের বাড়িঘর ভেঙে ফেলেছিল হাতিগুলি। শনিবার স্থানীয় বাসিন্দা এক যুবককে ছিন্নভিন্ন করে দিয়েছিল একটি হাতি। রবিবার রাতে ফের আরও একটি ঘটনা।

স্কুল ফাইনালে এবার মাদ্রাসায় বসতে চলেছে ৭০ হাজার হিন্দু পড়ুয়া

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, জঙ্গল সংলগ্ন ওই গ্রামটিতে মদের কারবার করতেন স্থানীয় কয়েকটি শবর পরিবার। গ্রামে ঢুকলেই মদের গন্ধ কদিন ধরেই একটু বেশি ম ম করছিল। বনদফতর-এর দাবি সেই মদের গন্ধেই তিনটি হাতি রবিবার রাতে প্রবেশ করেছিল গ্রামে। এর ওর বাড়ি ভেঙে মদের খোঁজ করছিল হাতিগুলি। রাতের অন্ধকারে হাতিতে বাড়ি ভাঙছে জানতে পেরে গ্রামবাসীরা এদিক-ওদিক ছোটাছুটি শুরু করে দিয়েছিলেন। তিন বছরের সন্তান দিশাকে নিয়ে পালাতে গিয়ে মা কল্যাণী শবর হাতির সামনে পড়ে গিয়েছিলেন। তখনই হাতির দল মা ও সন্তান দু'জনকেই নৃশংসভাবে খুন করে।

ভিডিও দেখে সটান হাজির স্টিভ, মুচিপাড়ার ক্ষুদে বিস্ময়-কে বানাবেন বড় ক্রিকেটার

সোমবার সকালে গ্রামবাসীরা তাদের বাড়ির সামনে রক্তাক্ত মৃতদেহ দেখতে পায়। বনদফতর দেহগুলি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে। গ্রামবাসীরা এই ঘটনায় ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন বনদফতর-এর বিরুদ্ধে। গত এক সপ্তাহ ধরেই এই হাতিগুলি ব্যাপক নাশকতা শুরু করেছে এলাকায়। গ্রামবাসীদের দাবি, বন দফতরের তেমন সক্রিয়তা না থাকার কারণেই একের পর এক খুন করে চলেছে হাতি। তবে ঘটনার পরে ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা করে দুই প্রান্তের বন বিভাগ যৌথভাবে হাতিগুলোকে এলাকাছাড়া করার উদ্যোগ নিয়েছে।