Asianet News BanglaAsianet News Bangla

হাতির হামলায় মৃতের পরিবারের একজনকে চাকরি, জঙ্গলমহলে সফরে গিয়ে ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

  • দু'দিনের সফরে জঙ্গলমহলে মুখ্যমন্ত্রী
  • পশ্চিম মেদিনীপুরের প্রশাসনিক বৈঠক করলেন খড়গপুরে
  • হাতির হামলায় মৃতের পরিবারকে পাশে সরকার
  • আর্থিক সাহায্য ও চাকরি দেওয়ার ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর
Family member of those killed by elephant will get job, says CM BTG
Author
Kolkata, First Published Oct 6, 2020, 6:39 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

শাজাহান আলি, মেদিনীপুর: খাবারে সন্ধানে লোকালয়ে ঢুকে পড়ে যখন-তখন। হাতির হামলায় যদি কেউ প্রাণ হারান, তাহলে মৃতের পরিবারে আর্থিক সাহায্য করবে সরকার। পরিবারের একজনকে চাকরিও দেওয়া হবে হোমগার্ড পদে। পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার প্রশাসনিক বৈঠক থেকে ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুন: 'মিথ্যা গাঁজার কেস দেন ওসি', ফেসবুকে বিতর্কিত পোস্ট দিয়ে বিপাকে মানবাধিকার কর্মী

পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম-সহ আশেপাশের জেলাগুলির জঙ্গলে হাতির অভাব নেই। তার উপর আবার দলমা থেকে হাতি এসে ঢুকে পড়ে জঙ্গলে। খাবার মিলবে কোথায়? স্রেফ পেটের জ্বালা মেটাতে ইদানিং হাতিদের লোকালয়ে হানা দেওয়ার প্রবণতা বেড়েছে। ফলে বিপদে পড়তে হচ্ছে জঙ্গল লাগোয়া গ্রামের বাসিন্দাদের। চাষের জমি, বাজার-হাট, এমনকী বাড়িতেও হামলা চালাচ্ছেন দাঁতালের দল। পথ-ঘাটে যেন বিপদ ওঁত পেতে বসে আছে! হাতির হামলার প্রাণহানির ঘটনা যেমন বাড়ছে, তেমনি আবার বরাতজোরে বেঁচেও যাচ্ছেন কেউ কেউ।

করোনা আতঙ্কের মাঝে ফের জেলাসফরে বেরিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবারের গন্তব্য, জঙ্গলমহল। দু'দিনের সফরে পশ্চিম মেদিনীপুরের খড়গপুরে পৌঁছান তিনি। পশ্চিম মেদিনীপুরের প্রশাসনিক বৈঠকও সেরে নেন রেলশহরে। সেই বৈঠকের মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা,  'ঝাড়গ্রামে হাতির তাণ্ডবে একাধিক মৃত্যুর ঘটনা ঘটে, পশ্চিম মেদিনীপুরেও ঘটে। সেই কারণে সরকারের তরফে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, হাতির হানায় মৃতের পরিবারকে আর্থিক সাহায্য করা হবে। পাশাপাশি, মৃতের পরিবারের একজন চাকরিও পাবেন হোমগার্ড পদে।' বস্তুত, মাওবাদী হামলায়  মৃত বা দশ বছরের বেশ সময় ধরে নিখোঁজের পরিবারের একজনকেও চাকরি অথবা চার লক্ষ টাকা আর্থিক ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী।

আরও পড়ুন: বিজেপি নেতা শমিক ভট্টাচার্যের গাড়িতে হামলা,কাঠগড়ায় তৃণমূল

উল্লেখ্য, করোনা আতঙ্কের কারণে প্রায় ছ'মাস স্থগিত ছিল মুখ্যমন্ত্রী জেলা সফর। তবে নবান্ন থেকে অবশ্য ভার্চুয়ালি কয়েক জেলার প্রশাসনিক আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন তিনি। সেপ্টেম্বর শেষে প্রথম সশরীরের উত্তরবঙ্গে সফরে যান মুখ্যমন্ত্রী। সেবারও কিন্তু শিলিগুড়ির উত্তরকন্যা থেকে ভার্চুয়াল বৈঠকই হয়েছিল। জঙ্গলমহলে সফরে কিন্তু সরাসরি প্রশাসনিক আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করলেন মুখ্যমন্ত্রী। বুধবার প্রশাসনিক বৈঠক হবে ঝাড়গ্রামে।

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios