এক বৃদ্ধা বিধবা সবর মহিলাকে ডাইনি সন্দেহে অত্যাচারের অভিযোগ উঠল ঝাড়গ্রামে। অভিযোগ, বেধড়ক মারধর করে গরম রডের ছ্যাঁকাও দেওয়া হয়েছে তার শরীরে। এই ঘটনায় গ্রামবাসীসহ স্থানীয় বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে। পুলিশ মঙ্গলবার অভিযুক্তদের মধ্যে থেকে তিনজনকে গ্রেফতার করেছে।

রবীন্দ্রসঙ্গীতে অশ্লীল শব্দ ব্যবহার, রোদ্দুর রায়ের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ

জানা গিয়েছে, ঝাড়গ্রাম জেলার সাঁকরাইল ব্লক-এর ভালকিশোল গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে। স্থানীয় বাসিন্দা বৃদ্ধা বিধবা চম্পা আড়িকে গ্রামের কয়েকজন ডাইনি হিসেবে সন্দেহ করতে শুরু করেছিল। শবর ওই মহিলা বাড়িতে একাই থাকতেন। সম্প্রতি ডাইনি অপবাদ দিয়ে গ্রামের কিছু লোকজন সহ স্থানীয় বিজেপি নেতা রবীন্দ্র হাঁসদা চম্পা দেবীকে হেনস্থা শুরু করেছিল। 

ফের কলকাতায় করোনা আতঙ্ক, শরীরে চিনা ভাইরাস সন্দেহে হাসপাতালে মহিলা

রবিবার সন্ধ্যাবেলা গ্রামের কয়েক জন পুরুষ ও মহিলা তাকে পাড়ার একটি স্থানে তুলে নিয়ে গিয়ে রবীন্দ্র হাঁসদা বেধড়ক মারধর করে বলে অভিযোগ। লাঠি নিয়ে মারপিট করার সাথে সাথে লোহার রড গরম করে তাকে ছ্যাঁকা দেওয়া হয়েছে। জোর করে তাকে মানতে বাধ্য করা হয় যে সে ডাইনি। 

করোনা-সচেতনতায় পার্কে মিমি, বাচ্চাদের সঙ্গে খেলতে খেলতেই দিলেন সুরক্ষার পরামর্শ

মারধর করে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে বাড়ির কাছে ছেড়ে দিয়ে চলে যায় গ্রামের লোকজন। পরিবারের সদস্য ও আত্মীয়রা তাকে উদ্ধার করে রাতেই ঝাড়গ্রাম হাসপাতালে ভর্তি করে। এই ঘটনায় তদন্তে নেমে পুলিশ মোট তিন জনকে গ্রেপ্তার করেছে। মঙ্গলবার তাদের ঝাড়গ্রাম আদালতে তোলা হলে বিচারক সাত দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেন। তবে এই ঘটনায় ফেরার রয়েছে বিজেপি নেতা রবীন্দ্র হাঁসদা।