শাহজাহান আলি ও সঞ্জীব কুমার দুবে:  অযোধ্যায় যখন মন্দির তৈরির জন্য ভূমি পুজো চলছে, তখন পূর্ব মেদিনীপুরের মহিষাদলে রামের পুজো করতে গিয়ে পুলিশি বাধার মুখে পড়লেন বিজেপি কর্মীরা। মেদিনীপুর শহরে গ্রেফতার হলেন দলের চারজন কর্মীদের।

আরও পড়ুন: 'বৈচিত্র্য়ের মধ্য়ে ঐক্যের ঐতিহ্য রক্ষা করবো', টুইটে সম্প্রীতির বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর

কয়েক দশকের আইনি লড়াই, অযোধ্যায় রাম মন্দির তৈরির পক্ষেই রায় দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। মন্দির তৈরির জন্য ভুমিপুজোয়  বসেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি স্বয়ং। সেজে উঠেছে গোটা শহর। এ রাজ্যেও বিজেপি কর্মী-সমর্থকদের উৎসাহ কম নয়। কিন্তু ঘটনা হল, করোনা সতর্কতায় বুধবার আবার বাংলার লকডাউন জারি করেছে রাজ্য সরকার। জমায়েত করা তো দূর অস্ত, একান্ত প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে বেরনোর ক্ষেত্রে জারি করা হয়েছে নিষেধাজ্ঞা। 

বুধবার সকালে লকডাউন উপেক্ষা করে পূর্ব মেদিনীপুরের মহিষাদলে রামের পুজো করার উদ্যোগ নেন বিজেপির স্থানীয় নেতারা।  দলের কার্যালয়ে ভিড় জমান বহু কর্মী-সমর্থক। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে হাজির হয় পুলিশ। পার্টি অফিস খালি করে দেওয়া হয়, এমনকী চলে যেতে বলা পুরোহিতকেও। জমায়েত রুখতে বিজেপি পার্টি  অফিস ও লাগোয়া এলাকা ঘিরে ফেলে পুলিশ। ভেস্তে যায় পুজোর আয়োজন।

আরও পড়ুন: সরকারি স্কুলের জমিতে 'দোকান তৈরির চেষ্টা', প্রতিবাদ করে 'অপমানিত' শিক্ষিকা

এদিকে আবার লকডাউন মাঝেই রামের পুজোর তোড়জোড় চলছিল মেদিনীপুর শহরেও। শহরের রামকৃষ্ণ নগর এলাকায় পার্টি অফিসের পাশে পুজো আয়োজন করেছিলেন বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা। অযথা জমায়েত করার অভিযোগে চারজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঘটনাকে কেন্দ্র করে সাময়িক উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়।