দিনেদুপুরে হাসপাতাল চত্বরে হঠাৎ বিষধর খরিস সাপের আবির্ভাব। ফনা উঁচিয়ে ফোঁস করতেই আতঙ্ক ছড়ায় রোগী এবং তাঁদের পরিজনের মধ্যে। আতঙ্কে ছোটাছুটি শুরু করে দেন তাঁরা। দৌড়াদৌড়ি শুরু হয়ে যায় হাসপাতালে ভিতরেই। শেষ পর্যন্ত স্থানীয় বাসিন্দারা  ও  হাসপাতাল চত্বরে থাকা অ্যাম্বুল্যান্স চালকদের তৎপরতায় ধরা পড়ে সাপটি। 

রবিবার দুপুরে ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুরের চন্দ্রকোণা গ্রামীণ হাসপাতালে। রবিবার দুপুরে হঠাৎ হাসপাতালের মূল গেটের সামনে হঠাৎ একটি বিষধর সাপকে ফণা তুলে ফোঁস ফোঁস আওয়াজ করতে দেখতে পান রোগী ও তাঁদের পরিজনরা। নিমেষে ফাঁকা হয়ে যায় হাসপাতাল চত্বর। 

স্থানীয় কয়েকজন বাসিন্দা এবং অ্যাম্বুল্যান্স চালকরাই এগিয়ে এসে সাপটিকে ধরার চেষ্টা করেন। চারদিক থেকে ঘিরে ধরে সাপটিকে আটক করা হয়।পরে একটি মাটির কলসির মধ্যে ভরে খবর দেওয়া হয় বন দপ্তরে। বনদপ্তরের কর্মীরা এসে সেটিকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়। আতঙ্ক ছড়ালেও সাপটির কোনও ক্ষতি করেননি স্থানীয় বাসিন্দারা। 

বনদপ্তরের স্থানীয় ধামকুড়া বিট অফিসার অসিত মণ্ডল বলেন, 'সাপটিকে প্রাথমিক পরীক্ষার পর জঙ্গলে ছেড়ে দেওয়া হবে।'