ঠিক সাত দিনের মাথায় ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠল সীমান্ত। এর আগে ২২ জুলাই তারিখে জম্মু ও কাশ্মীরের রাজৌরি জেলার সুন্দরবনি  সেক্টরে সীমান্ত সংঘর্ষের জেরে প্রাণ হারিয়েছিলেন এক ভারতীয় সেনা।  ফের সীমান্তে যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করল পাকিস্তান। সূত্রের খবর, রবিবারই আবার সীমান্ত চুক্তি লঙ্ঘন করে পাকিস্তান যার ফলে একজন মহিলা ও তাঁর শিশু-সহ আহত হয়েছেন। 

রবিবার জম্মু ও কাশ্মীরের পুঞ্চ জেলায় সেনাবাহিনীকে লক্ষ্য করে গোলাবর্ষণ করে পাকিস্তানি সেনা। ছোঁড়া হয় মর্টারও। আর এই আক্রমণের জবাব দিতে দেরি করেনি ভারতও। যার ফলে দুতরফে চলে জোরদার সংঘর্ষ। আর এই সংঘর্ষের শিকার হন তিনজন নিরপরাধ মানুষ। 

জানা গিয়েছে, পাক বাহিনীর তরফে মর্টার বর্ষণের ফলে ৪০ বছরের মহম্মদ আরিফ, ৩৫ বছরের ফতিমা জান এবং তাঁদের দু'সপ্তাহ বয়সী একটি শিশু সন্তান গুরুতর আহত হয়েছে। একটি সাংবাদিক বৈঠকে সেনাবাহিনীর মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট কর্নেল দেবেন্দ্র আনন্দ জানিয়েছেন, রবিবার বিকেল ৫টা নাগাদ শাহপুর ও সাউজিয়ান এলাকায় গুলি বর্ষণ করেছে পাকিস্তানি সেনা। ভারতীয় সেনার তরফে এর পাল্টা আক্রমণ করার কিছুক্ষণ পরই থেমে যায় গুলিবর্ষণ।

বেশ কিছুক্ষণ ধরে ভারত-পাক সংঘর্ষ চলায় ভারতীয় জওয়ানদের পক্ষে কোনও হতাহতের খবর না থাকলেও এর ফলে স্থানীয় বাসিন্দাদের বেশকিছু ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।