গত শুক্রবারই পাক অধিকৃত কাশ্মীরের রাজধানি মুজফ্ফরাবাদে সভা করেছেন ইমরান খান। আর সেই সভাতেই ইমরান খানের বিরুদ্ধে স্লোগান দিয়েছিলেন পাক অধিকৃত কাশ্মীরের একদল ছাত্র-যুব। এবার তাঁদের বিরদ্ধে মামলা করল ইমরান খান প্রশাসন। সংশ্লিষ্ট মহল মনে করছে, এতে করে ভারতের হাতেই অস্ত্র তুলে দিল পাকিস্তান।

ভারত সরকার জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহার করার পর থেকেই পাকিস্তান কাশ্মীরিদের উপর ভারতীয় সেনাবাহিনী অত্যাচার করছে বলে অভিযোগ করে আসছে। ভারত পাল্টা অভিযোগ করেছিল পাক অধিকৃত কাশ্মীরের বাসিন্দাদের নিয়ে। বলেছিল, এই স্থানে ইমরান খানের সঙ্গে সুরে সুর লে না যাদের, তাদের উপর দমন নীতি প্রয়োগ করা হয়। এই ঘটনায় ভারতের সেই দাবিই মান্যতা পেল বলে মনে করা হচ্ছে।

গত শুক্রবার মুজফ্ফরাবাদে কাশ্মীর সংহতি ঘন্টা পালনের ডাক দিয়েছিলেন পাক প্রধানমন্ত্রী। কিন্তু, অধিকৃত কাশ্মীরের বাসিন্দারা তাতে সাড়া দেননি বলেই জানা গিয়েছিল। সেখানকার রাজনীতিবিদরা ইমরানের সভাকে বলেছিলেন 'ফ্লপ শো'। আসন ভরাতে রাওয়ালপিন্ডি, লাহোর থেকে ট্রাক ভর্তি করে ইমরান সমর্থকদের আনতে হয়েছিল।