বৃহস্পতিবার  ভারত ও পাকিস্তান  ঐতিহাসিক কর্তারপুর করিডর চুক্তি স্বাক্ষরিত করল। এই চুক্তির জেরে  ভারতীয় শিখ তীর্থযাত্রীরা পাকিস্তানের অভ্যন্তরে দেরা বাবা নানক শরিফ পরিদর্শনে যেতে পারবেন। এই দরবার শরিফ ভারত-পাক সীমান্ত থেকে চার কিলোমিটার অভ্যন্তরে।  এই কর্তারপুর করিডর পঞ্জাবের দেরা বাবা নানকের দরবার শরিফ থেকে কর্তাররপুরের দরগার সাহেব পর্যন্ত যোগাযোগ রক্ষা করবে। পাকিস্তানের পঞ্জাব প্রদেশের  নারওয়াল জেলায় অবস্থিত। 

পাকিস্তানের নারওয়াল জেলায় ভারত-পাক সীমান্তের কর্তারকপুর জিরো পয়েন্টে এই চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। এই দরবার শরিফে শিখ ধর্মের প্রতিষ্ঠাতা গুরু নানক জীবনের শেষ ১৮ বছর অতিবাহিত করেছিলেন। চুক্তি অনুযায়ী শিখ তীর্থযাত্রীরা সকালে এসে কর্তারপুরের দেরা বাবা নানকের দরবার শরিফ পরিদর্শনে আসতে পারবেন। কিন্তু সকলকে সন্ধের সময় ফিরে যেতে হবে । পাকিস্তানের অভ্যন্তের চার কিলোমিটার যেতে শিখ তীর্থযাত্রীদের কোনও ভিসা লাগবে না বলে জানা গিয়েছে। 

জানা গিয়েছে, চুক্তি অনুযায়ী পাকিস্তান প্রতিদিন পাঁচ হাজার তীর্থযাত্রীকে কর্তারপুরে প্রবেশ করতে দেবেন। তবে এই তীর্থযাত্রার জন্য শিখদের মাথাপিছু ২০ মার্কিন ডলার দিতে হবে। ভারতীয় মূল্যে ১৪০০ টাকা দিতে হবে। যদিও ভারতীয় প্রশাসন তীর্থযাত্রীদের কাছ থেকে এই অর্থ না নেওয়ার জন্য আবেদন করেছে।